বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১
Logo
লোহাগড়া ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তার বিরুদ্বে ব্যাপক অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ

লোহাগড়া ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তার বিরুদ্বে ব্যাপক অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ

প্রতিবাদে মিছিল-সমাবেশ-মানববন্ধন

নড়াইলের লোহাগড়ার দিঘলিয়া ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তার দুর্নীতি-অনিয়মের বিচারসহ অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী।

 

রোববার দুপুর ২টায় দিঘলিয়া বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। অভিযোগে জানা গেছে, দিঘলিয়া ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান সেবা প্রার্থীদের কাছ থেকে ভয়-ভীতি প্রদর্শণসহ কৌশলে লাখ লাখ টাকা ঘুষ নিচ্ছেন। করছেন অসদাচরণ।

 

ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট ওই ভূূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিলেও কাজ হয়নি। উপায়ন্তর না পেয়ে এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধারাসহ বিক্ষুব্ধ লোকজন বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে। সমাবেশে বক্তারা অভিযোগ করেন, সেবা প্রার্থীদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে ভূমি কর্মকর্তা তাদের কম টাকার রশিদ দিচ্ছেন। চাহিদা মাফিক টাকা না দিলে সেবা প্রার্থীদের গালিগালাজ করছেন।

 

কুমড়ি গ্রামের মোঃ আজিজুল শেখের ছেলে মোঃ বালাম শেখ অভিযোগে জানান, ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান আমার কাছ থেকে ১ হাজার টাকা নিয়ে ২শত টাকার খাজনা রশিদ(দাখিলা) দিয়েছেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জমির খাজনাও নিচ্ছেন কয়েকগুণ বেশি। নামজারীর প্রতিবেদনে ভূমির মালিকদের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

 

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ চান সরদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা এসকে, আবু তাহের মোল্যা, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আজিম খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা হারুন সরদার, ব্যবসায়ী মোঃ কামরুল শেখ, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা সরদার আবদুল হাই, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ হাবিবুর রহমান, মোঃ কবির হোসেন, শেখ নজরুল ইসলাম, আঃ আজিজ মোল্যা প্রমুখ।

 

দিঘলিয়া ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমান অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার মা অসুস্থ। আমি পরে কথা বলবো। লোহাগড়া উপজেলার সহকারী কমিশনার(ভূমি) রাখী ব্যানার্জী বলেন, ভূমি সহকারী কর্মকর্তা সৈয়দ মুস্তাফিজুর রহমানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত রিপোর্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট দ্রুতই দাখিল করবো। বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংযুক্ত থাকুন