শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১
Logo
ঝিনাইদহে গরুর খুরা রোগের প্রাদুর্ভাব : ২ মাসে মারা গেছে প্রায় ৪শ’ গরু-বাছুর

ঝিনাইদহে গরুর খুরা রোগের প্রাদুর্ভাব : ২ মাসে মারা গেছে প্রায় ৪শ’ গরু-বাছুর

একে তো মহামারি করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ ঝিনাইদহের খামারীরা। এরপর মরার উপর খাড়ার ঘা হয়ে দাড়িয়েছে গরুর খুরা রোগ। গত ২ মাসে জেলার ৬ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে মারা গেছে ৪ শতাধিক গরু বাছুর। এতে সর্বস্ব হারিয়ে গোয়লশূন্য খামারিরা। আর চিন্তিত অন্যরাও।


জেলা প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর সুত্রে জানা যায়, গত ২ মাসে সদর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ৭০ টি, শৈলকুপায় ১০৯ টি, কালীগঞ্জে ৮৫ টি, মহেশপুরে ৬৯ টি, কোটচাঁদপুরে ২৬ টি, হরিণাকুন্ডুতে ২৭ টি গরু-বাছুর মারা গেছে।


এছাড়াও আক্রান্ত হয়েছে অন্তত ৩০ হাজার গরু-বাছুর।


সদর উপজেলার বিষয়খালী ঘোষ পাড়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, আমি এনজিও থেকে লোন করে গরু কিনিছিলাম। ভ্যান চালায়ে গরুর খাওয়াতাম। আমার গরু ৭ মাসের গাভিন (গর্ভবতী ছিল। হঠাৎ করে মুখে আর পায় ঘা হয়। খাওয়া বন্ধ করে দ্যায়। ডাক্তার দ্যাখালাম। কোন কাজ হলো না।


কয়দিনের মদ্যিই মরে গেল আমার আড়াই লাক (লাখ) টাকার গরু। একই গ্রামের পলাশ ঘোষ বলেন, আমি লোন করে ২ টা গরু কিনিছিলাম। খুরা রোগে আমার গরু ২ টা মরে গেল। আমার গুয়াল (গোয়াল) ঘর একুন ফাকা। যা দুধ হচ্ছিল তা বিক্রি করে সমিতির কিস্তি দিচ্ছিলাম। এখন গরু মরে যাওয়াতি আমি টাকাও দিতি পারছিনে। সংসারও চলছে না। কি করব এখন চোকে অন্দকার দেকছি।


শৈলকুপা উপজেলার হাবিবপুর গ্রামের খামারি মিঠু শেখ জানান, তিনি গরুর লালন-পাল করে সংসার চালান। এ বছর তার খামারে ৩৭ টি গরু ছিল। খুরা রোগে ৩ টি গরুর মারা গেছে। এখনও ৫ টি গরু অসুস্থ রয়েছে।


এ নিয়ে চিন্তিত তিনি। কবিরপুর গ্রামের দুলাল ঘোষ জানান, তার ৫ টি গরু ছিল। খুরা রোগে তার ৩ টি গরুর মারা গেছে। ২ টি গরুর মধ্যে একটি সুস্থ হয়েছে আর অন্যটি এখনও অসুস্থ রয়েছে।


সদর উপজেলার কেশবপুর গ্রামে কামরুজ্জামান নামের এক খামারী বলেন, আমি গরুর বড় করে বিক্রি করি। আশপাশের লোকজনের গরুর খুরা রোগ হচ্ছে। আমার গরু নিয়ে আমি খুব চিন্তায় আছি। কি করব বুঝতি পারছিনে।


এ ব্যাপারে জেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ আনন্দ কুমার অধিকারী বলেন, প্রতিবছরই গরুর খুরা রোগ হয়। এবার আক্রান্তের সংখ্যা একটি বেশি। এখন পর্যন্ত জেলার ৬ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে ২৭ হাজার গরুর ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। আমরা প্রতিনিয়ত খামারীদের পরামর্শ দিয়ে আসছি।

সংযুক্ত থাকুন