বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১
Logo
চৌগাছায় হাতের রগ কাটা অবস্থায় ঝুলন্ত মহিলার লাশ উদ্ধার

চৌগাছায় হাতের রগ কাটা অবস্থায় ঝুলন্ত মহিলার লাশ উদ্ধার

যশোরের চৌগাছায় হাতের রগকাটা ও শরীরে আঘাতের চিহ্নসহ ঝুলন্ত অবস্থায় এক মহিলার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার সকালে থানা পুলিশ উপজেলার চাকলা গ্রাম থেকে লাশটি উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।


পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নিহত হাসু খাতুন (২৬) চাকলা গ্রামের আলাউদ্দীনের স্ত্রী। আলাউদ্দীন দীর্ঘ ৫ বছর দুবাই থাকার পর কিছুদিন হলো বাড়ীতে এসেছেন। রবিবার ভোরে পরিবারের লোকজন তাদের সিঁড়ির ঘরের আড়ায় ওড়না পেচানো ঝুলন্ত লাশ দেখে তারা পুলিশে খবর দেন।


খবর পেয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল যান। সেখান থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনেন। পরবর্তীতে ময়না তদন্তের জন্য নিহতের লাশ যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠান।


স্থানীয়রা জানান, নিহত হাসু খাতুনের বাম পা ও বাম হাতে ধারাল অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনাস্থলে রক্তপাতের দাগ লক্ষ্য করা গেছে। হাকিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদুল হাসান জানান, চাকলার আলাউদ্দীনের স্ত্রীর লাশ সিঁড়ির ঘরের আড়াতে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। গলায় ওড়না পেঁচানো ছিল। বাম হাত ও বাম পায়ের রগ কাটার দাগ দেখা গেছে।


নিহত হাসুর পিতা মোহাম্মদ আলী জানান, আমার মেয়ের সাথে আলাউদ্দীনের ১০ বছর আগে বিয়ে হয়। পরিবারের টাকার প্রয়োজনের কারনে আমি জামাইয়ের কাছে জমি দেয়া বাবদ এক লাখ ৪০ হাজার টাকা গ্রহণ করি। এই জমি নিয়ে আমার সাথে জামাইয়ের মনোমালিন্য হয়।


তিনি বলেন, শনিবার সকালে আমার জামাই বাড়ীতে গিয়ে আমার কাছে দুই লাখ টাকা দাবী করে। আমি টাকা দিতে অপরাগতা স্বীকার করে জমি অন্য কোথাও বিক্রির কথা বলি। ফলে সে বাকবিতন্ডা করে চলে আসে। রবিবার ভোরে শুনেছি আমার মেয়ে মারা গেছে। এ সময় তিনি অভিযোগ করেন, জমির টাকাকে কেন্দ্র করে আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে।


তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই এনামুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে যশোর মর্গে পাঠিয়েছি। হত্যা সন্দেহ থাকায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী আলাউদ্দীনকে আটক করা হয়েছে। তবে সুরতহাল রিপোর্টের পর সঠিক তথ্য জানা যাবে।

সংযুক্ত থাকুন