মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১
Logo
চিতলমারীতে প্রতিবন্ধীর জায়গা দখল : এলাকাবাসী সোচ্চার

চিতলমারীতে প্রতিবন্ধীর জায়গা দখল : এলাকাবাসী সোচ্চার

মানববন্ধনে সর্বস্তরের মানুষ

বাগেরহাটের চিতলমারীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বিনয় মজুমদার (৫৪) নামের এক প্রতিবন্ধীরর জায়গা দখলের অভিযোগ উঠেছে প্রভাবশালী মহলের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সোচ্চার হয়েছে এলাকাবাসী।

 

বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনার সু-বিচার ও জায়গা দখলমুক্ত’র দাবিতে এলাকার সর্বস্তরের মানুষ মানববন্ধন করেছেন। উপজেলার সদর ইউনিয়নের দানোখালী গ্রামে এ মানববন্ধন হয়। এ ব্যাপারে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে।

 

মানববন্ধনে অংশ গ্রহণকারী প্রবীণ ব্যক্তিত্ব ভুবেনশ্বর চৌধুরী, শচীন্দ্র নাথ ঢালী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মহাসিন আলী, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য কৃষ্ণপদ গাইনসহ গ্রামবাসীরা বলেন, ১৯৬০ সালে বিনয় মজুমদারের ঠাকুরদাদা হরষিত মজুমদার কালিচরন শিকারীর কাছ থেকে পাটরপাড়া মৌজার এসএ ১২৯ খতিয়ানের ১১২ ও ১১৬ দাগে ৩০ শতক জমি ক্রয় করেন।

 

বিগত ৬১ বছর ধরে ওই জমি বিনয় মজুমদার বংশ পরস্পরায় ভোগ দখল করে আসছেন। বর্তমান জরিপে রেকর্ড না হওয়ায় বিনয় মজুমদার বাদী হয়ে মোকাম সহকারী জজ আদালত চিতলমারী, বাগেরহাট-এ মামলা দায়ের করেন।

 

বিজ্ঞ আদালত পরবর্তী আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থিতিশীল অবস্থা বজায় রাখার জন্য উভয়পক্ষকে নির্দেশ প্রদান করেন। এছাড়াও বর্তমান বিবাদী মোঃ হামিদ খান বাগেরহাট বিজ্ঞ অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মিস মামলা-৫১/২১ দায়ের করেন। মামলার ধার্য্য তারিখ আগামী ২৩/০৩/২০২১ ইং তারিখ।

 

এ ঘটনায় বিজ্ঞ আদালতের আদেশক্রমে চিতলমারী থানার এস আই মোঃ কামরুজ্জামান গত ০৩/০২/২০২১ ইং তারিখ স্থিতি অবস্থা বজায় রাখার জন্য উভয়পক্ষকে নোটিশ জারি করেন।

 

বিজ্ঞ দু’টি আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রভাবশালী হামিদ খা ও তার ২০-২৫ জন ভাড়াটিয়ালোক গত ০২/০৩/২০২১ তারিখ রাতে প্রতিবন্ধী বিনয় মজুমদারের নালিশী জায়গা অবৈধভাবে দখল করে ঘর নির্মাণ করেছে। আমরা এলাকার সর্বস্তরের মানুষ ন্যাক্কারজনক এ ঘটনার বিচারের দাবি ও জায়গা দখলমুক্তের জন্য মানববন্ধন করছি।

 

বিনয় মজুমদারের স্ত্রী অঞ্জু মজুমদার কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমরা যুগযুগ ধরে এই জমি ভোগ দখল করে আসছি। আমার ছেলেটি কলেজে পড়ে। পঙ্গু স্বামীকে নিয়ে আমি কোথায় যাবো? কি করব? এ ব্যপারে হামিদ খান বলেন, পাটরপাড়া মৌজায় আমি ৩৭ শতক জমি বাবু রাম শিকারীর কাছ থেকে প্রায় দেড় বছর আগে ক্রয় করেছি। কোন দখলবাজীর ঘটনা ঘটেনি।

 

আমার জমি আমি বুঝে নিয়েছি। এ ব্যাপারে বিজ্ঞ আদালতের আদেশক্রমে নোর্টিশ প্রদানকারী চিতলমারী থানার এস আই মোঃ কামরুজ্জামান বলেন, আদালতের নির্দেশে স্থিতি অবস্থা বজায় রাখার জন্য উভয়পক্ষকে নোটিশ প্রদান করেছি। শুনেছি হামিদ খা ও তার লোকজন রাতের আঁধারে নালিশি ওই জায়গা দখল করে গৃহ নির্মাণ করেছে।

সংযুক্ত থাকুন