কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভবনের পলেস্তারা খসে খসে পড়ছে

0
44


নড়াইল সংবাদদাতা
নড়াইলের কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সম্ভাব্য দূর্ঘটনা ও ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে একমাত্র পুরাতন ভবনের রোগী, প্যাথলজি ও দাফতরিক কাজে ব্যবহৃত কক্ষগুলো থেকে মালামাল ও কর্মচারিদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে। রোগীদের ঠাঁই হয়েছে অপারেশান থিয়েটার ভবনের বারান্দার মেঝেতে। অপরদিকে দাফতরিক কাজের মালামাল গুলোর চিকিৎসকদের আবাসিক ভবনে উঠানো হয়েছে। রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছে। জানা যায়, চার লক্ষাধিক মানুষের একমাত্র সরকারি চিকিৎসা সেবা দানকারি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পুরাতন ভবনটি যে কোন সময় ভেঙে পড়ে প্রাণহানী ঘটতে পারে বলে শংকিত হয়ে পড়েছে কর্তৃপক্ষ। তাই ভবনের দ্বোতলায় থাকা ওয়াডের্র ৩০ জন রোগীসহ দাফতরিক মালামাল স্থানান্তর করা হয়েছে। প্রায় চার বছর আগে পরিত্যাক্ত ঘোষিত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পুরাতন ভবনটির দেওয়াল ও পিলার গুলোতে ফাঁটল ধরে খষে পড়তে শুরু করেছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, কমপ্লেক্সের এ ভবনের পিলারসহ দেওয়ালের বিভিন্ন স্থানে সৃষ্ট ফাঁটল থেকে ইট, কোয়া,পলেস্তারা ভেঙে পড়তে শুরু করেছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কর্মকর্তা ডা.কাজল মল্লিক বলেন, ‘ভবনটি দীর্ঘদিন আগেই পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। কর্মরত চিকিৎসক, নার্স,কর্মচারি, রোগী ও তাদের স্বজনদের জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চলাফেরা করতে হচ্ছে।’ নড়াইলের সিভিল সার্জন ডা. নাসিমা আক্তার বলেন, ‘প্রায় দেড় বছর আগেই ভবনটি অপসারণসহ নতুন ভবন নিমার্ণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

Comment using Facebook