বাগেরহাটে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে প্রতিপক্ষের হামলায় মা-মেয়ে আহত

0
19


বাগেরহাট সংবাদদাতা
বাগেরহাটে আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বসত বাড়ীতে অনধিকার প্রবেশ করে মা ও মেয়েকে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় আহত মা ও মেয়েকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বাগেরহাট ২৫০ শয্যা জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বাগেরহাট সদর উপজেলার রনবিজয়পুর গ্রামে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নাজমা বেগম (৪০) বাগেরহাট সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে ভুক্তভোগী নাজমা বেগম জানান, সদর উপজেলার ইউনুস মোল্লা, মোঃ আলী আমাদের প্রতিবেশী। তারা দীর্ঘদিন ধরে আমাদের বসতবাড়ী থেকে বিভিন্ন প্রকার মালামাল নিয়ে ক্ষতি সাধন করে আসছে। আমরা কোন প্রতিবাদ করলেই তারা আমাদের হামলা ও মারপিটের ভয়ভীতি প্রদান করে। এ ঘটনায় আমার স্বামী মোঃ আনোয়ার হোসেন বাদি হয়ে গত ৩১ আগস্ট ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৪৪ ধারায় মামলা করেন। কিন্তু তারা আদালতের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে আমাদের বসত বাড়ীতে অনধিকার প্রবেশ করে। এ সময় পাশ^বর্তী ইউনুচ মোল্লার নির্দেশে তানভির মোল্লা,মোঃ আলী ও ফুলি বেগম আমার উপর হামলা করে। তারা বিনা কারনে আমাকে কিল, ঘুষি ও লাঠি দিয়ে পিটাইয়া আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ফোলা জখম করে। এ সময় আমার এস এস পরীক্ষার্থী কণ্যা তুরজাউন (১৫) আমাকে উদ্ধারে এগিয়ে আসলে হামলা কারীরা আমার মেয়েকেও মারধর করে গুরুত্বর জখম করে। আমাদের ডাক চিৎকারে আশ পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে হামলা কারীরা আমাদের প্রানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। ভুক্তভোগী নাজমা বেগম আরো জানান, ইউনুস মোল্লা, মোঃ আলীগং দীর্ঘদিন ধরে আমাদের পরিবারের উপর নির্যাতন করে আসছে। তাদের অত্যাচারে আমরা পরিবার নিয়ে চরম সংকটের মধ্যে দিন কাটাচ্ছি। আমরা সংবাদ সম্মেলনসহ বিভিন্ন সময় প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিয়েও কোন প্রতিকার পায়নি। তিনি সঠিক বিচারের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এ বিষয়ে বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আজিজুর রহমান জানান, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহজন করা হবে বলে তিনি জানান।

Comment using Facebook