মটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা

0
98

খানজাহান আলী থানা সংবাদদাতা

পছন্দের মোটর সাইকেল কিনে না দেওয়ায় পিতার ওপর অভিমান করে সুইসাইড নোট লিখে গভ.ল্যাবরেটরি স্কুল থেকে সদ্য এসএসসি পাশ করা শিক্ষার্থী মো. সাফিন (১৭) নিজ শয়ন কক্ষে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১২টায় আড়ংঘাটা থানাধিন খানাবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ রিজু ভিলার দ্বিতীয় তলার ঘরের দর্জার সিটকিনি ভেঙ্গে মরদেহ এবং একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করেছে। সাফিনের স্বজন ও বন্ধুরা জানিয়েছে, বেশ কিছু দিন যাবত একটি মোটরসাইকেলের জন্য সাফিন তার পিতা মো. সাইদুর রহমানকে চাপ দিয়ে আসছিল। পিতার কাছ থেকে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার আশ্বাস না পেয়ে গত ২৮ জানুয়ারী সাফিন তার ফেইজবুক আইডিতে বিভিন্ন মডেলের মোটরসাইলের একটি ভিডিও পোষ্ট করে।

পোষ্টটির নিচে সে লেখে ‘‘শখের বয়সটায় টাকার অভাব থাকে’’। গত ৩১ জানুয়ারী সোমবার রাতে সাফিন তার পিতার সাথে মোবাইলে কথা বলে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করে। পিতার সাথে মোবাইলে কথা শেষে রাতে ঘরের দরজা দিয়ে ঘুমাতে যায়। মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে সাফিনের ঘরের দরজা বন্ধ থাকায় তাকে ডাকাডাকি করে কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে দরজার সিটকিনি ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে দেখে সিলিংয়ের ফ্যানের হুকের সাথে রশি দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে আছে সাফিন। পরে আড়ংঘাটা থানা পুলিশ এসে তার মরদেহ উদ্ধার করে। এ সময় পুলিশ একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করে যাতে লেখা আছে ‘‘আই কুইট, আই এম সরি দাদিমা, না পারলাম ছেলে হতে, না পারলাম কারো কিছু করতে। মরা এতো সোজা না অনেক ভয় লাগে, বুয়ো চলে গেলাম।

এদিকে মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে তার সহপাঠী, বন্ধু বান্ধব, স্কুলের শিক্ষকরা সাফিনের বাড়ীতে ছুটে এসে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। সহপাঠী এবং বন্ধু-বন্ধবের কান্নায় বাতাস ভারী হয়ে ওঠে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছাড়া নেমে এসেছে।

Comment using Facebook