বাগেরহাটে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১০ : পুরুষ শূন্য এলাকা : আতঙ্ক

0
49


বাগেরহাট সংবাদদাতা
বাগেরহাটের বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের শেখরা গ্রামে আবারো আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। হামলার শেখরা গ্রামটিতে পুরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে। পুরুষ শূন্য গ্রামটিতে সাধারন নারীরা তাদের শিশু সন্তান নিয়ে চরম আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। অনেকেই নিজেদের খামারের গরু লুটের ভয়ে নিজেদের নিরাপদ আশ্রয় স্থানে নিয়ে গেছেন। ইউপি নির্বাচনের পর থেকেই সদরের বিষ্ণপুর ইউনিয়নের বিজয়ী চেয়ারম্যান বাবুল পাইক ও পরাজিত মেম্বার ইকরাম মল্লিকের মধ্যে বিরোধে দফায় দফায় সংঘর্ষ চলে আসছে।

এ পর্যন্ত ১০ মাসে কমপক্ষে ১৫ বার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। হামলায় উভয় পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুই গ্রুপের ৬জন আসামীকে গ্রেফতার করেছে। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বুধবার (২১ জুলাই) সন্ধায় সদর উপজেলার বিষ্ণপুর ইউনিয়নের শেখরা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মল্লিক ইকরামুল কবিরের বাড়ির সামনে জেলাল মল্লিক (৬০) ও হাসিবুল মল্লিক(৪৫) এর মধ্যে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে কথাকাটি হয়। একপর্যায়ে দুই গ্রুপের লোকজনের মধ্যে হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় শেখরা গ্রামের জেলাল মল্লিক (৬০) ও প্রতিপক্ষের হাসিবুল মল্লিক (৪৫) গুরুত্বর আহত হয়। তাদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। অন্যান্যেদের বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ সময় সাবেক ইউপি সদস্য একরামুল হকের বাড়িতে ব্যাপক ভাংচুর করে হাসিবুল মল্লিকের লোকজন। এ দিকে দফায় দফায় হামলায় শেখরা গ্রামটিতে পুরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে। মামলার ভয়ে গ্রামের পুরুষ ব্যক্তিরা পালিয়ে বেড়াচ্ছে। চরম আতঙ্ক ও জীবনের ভয়ে মহিলা ও শিশুরা দিন কাটাচ্ছে। অনেকে নিজেদের পরিবারের একমাত্র আয়ের উৎস খামারের গরু চুরির ভয়ে নিজেদের নিরাপদ আশ্রয় স্থানে নিয়ে গেছেন। আহত জেলাল মল্লিকের পরিবারসূত্রে জানা যায়, সন্ধায় আমার ভাসুর জেলাল মল্লিক বাড়ির সামনে বসা ছিল।

এ সময় পাশ^বর্তি হাসিবুল মল্লিক ভাসুরের কাছে জানতে চায় তুই এখানে বসা কেন। কিছু বলার আগেই হাসিব মল্লিক তার হাতে থাকা লাঠি দিয়ে আমার ভাসুরকে আঘাত করে। পরে হাসিব মল্লিক ও তার লোকজন আমাদের উপর হামলা করে ও বাড়ি ঘর ভাংচুর করে। এ সময় ঘরের থাকা নগদ অর্থ ও স্বর্নলংকার নিয়ে যায়। আমরা বাধা দিলে আমাদের বাচ্চাসহ প্রানে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেয়। এদিকে আহত হাসিবুল মল্লিকের পরিবার সূত্রে জানা যায়, হাসিবুল মল্লিক রাস্তা থেকে বাড়ির মধ্যে প্রবেশ করলে পূর্ব থেকে ওত পেতে থাকা পাশ^বর্তী এমরাম মল্লিক, জেলাল মল্লিকসহ তাদের লোকজন গামছা দিয়ে হাসিব মল্লিকের গলায় ফাস দেয়। এ সময় হাসিবুল মল্লিকের চিৎকারে বাড়ি ও আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। এসময় তাদের হাতে থাকা রাম দা, সড়কি ও লাঠি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। হামলায় হাসিব মল্লিক গুরুত্বর আহত হয়। এ সময় তাকে উদ্ধার করতে এসে পরিবারের সদস্যসহ ৫/৬ জন আহত হয়। অন্যদিকে সন্ধায় হাসিবুল মল্লিকের ভাই দারু মল্লিক জায়গা বিক্রি করে টাকা নিয়ে বাড়িতে আসছিল। প্রতিপক্ষরা দারু মল্লিককে দেখে ক্ষিপ্ত হয় ও তাকে মারধর করে। এ সময় দারু মল্লিকের কাছে থাকা জায়গার দলিলপত্র ও নগদ ৮ লক্ষ টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায় বলে এপ্রতিনিধিকে জানায়।

বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কে এম আজিজুর রহমান জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছি। তৎক্ষনাৎ আহতদের উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে প্রেরন করি। উভয় পক্ষের লোকজন আহত হয়। আহতের ২ জনের অবস্থা আশঙ্খাজনক হওয়ায় তাদেরকে খুলনায় চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। এ বিষয়ে উভয় পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য অফিসারসহ সোর্স নিয়োগ করা হয়েছে।

Comment using Facebook