বিপিএল ছাড়ার ‘হুমকি’ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন তাসকিন

0
70

ক্রীড়া ডেস্ক

মেহেদি মিরাজ ইস্যুর রেশ কাটতে না কাটতেই চলতি বিপিএলে নতুন আলোচনার জন্ম দেন তারকা পেসার তাসকিন আহমেদ। সোমবার হুট করেই খবর চাউর হয়, সিলেট সানরাইজার্সের পেসার তাসকিন নাকি পুরো পারিশ্রমিক না পেলে বিপিএলে আর না খেলার হুমকি দিয়েছেন।

নিয়মানুযায়ী, টুর্নামেন্ট শুরুর আগে ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিকের ৫০ ভাগ পরিশোধ করতে হয়। টুর্নামেন্ট শুরুর পর ২৫% এবং টুর্নামেন্ট শেষে বাকি ২৫% পারিশ্রমিক দিতে হয়। এ ক্ষেত্রে তাসকিন নাকি টুর্নামেন্টের মাঝপথে শতভাগ পারিশ্রমিকের দাবি করে বসেন।

সেই পারিশ্রমিক না দিলে তিনি খেলবেন না বলেও হুমকি দেন। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্যসচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক ক্রিকেটারের নাম উল্লেখ না করে বিষয়টি স্বীকার করেন। অবশেষে তাসকিন অডিও বার্তায় জানালেন, পুরোটাই ছিল ভুল-বোঝাবুঝি, ‘আমার সাথে তেমন কিছুই হয়নি জয় ভাইয়ের।

কোনো ক্ল্যাশ বা কোনো কিছুই হয়নি। এটা পুরোটাই ভুল-বোঝাবুঝি ছিল। আমাদের কথা ছিল পারিশ্রমিক ক্লিয়ার হবে। আমি আসলে ভেবেছিলাম আমার পারিশ্রমিক খেলার আগেই পরিশোধ হবে। আসলে একটা প্রসিডিউর আছে। এই প্রসিডিউর অনুযায়ী প্ররিশোধ হবে। এখানেই একটা মিস কমিউনিকেশন ছিল। এটা আসলে কোনো দ্বন্দ্বের বিষয় না। আমি মনে করি এটা নিউজেরও কোনো বিষয় না!

জয় ভাইয়ের সাথেও আমার কথা হয়েছে। ‘তাসকিন আরো বলেন, ‘বিপিএল গভর্নিং কমিটি থেকেও বলা হয়েছে প্রসিডিউর অনুযায়ী টাকাটা আমি পাব। এটা আসলে জানানোর জন্য ফোন করা হয়েছিল। আমার সাথে আমাদের টিম ওনার কারো সাথেই কোনো দ্বন্দ্ব নেই। জাস্ট জানার একটা বিষয় ছিল, এটাই আসলে একটা নিউজ হয়েছে। আর কিছু না। সত্যি কথা বলতে বায়ো বাবলের কারণে মালিকপক্ষ অনেক সময় হোটেলে থাকেন না। জয় ভাই খুবই অমায়িক মানুষ। তাঁর সাথে আমাদের সবার বোঝাপড়া অত্যন্ত ভালো। জাস্ট মিস কমিউনিকেশন।

তাসকিন বলেন, ‘আমি কয়েক বার ফোন করেছিলাম। ভাইয়া হয়তো কোনো কারণে মিস করেছেন। তখন আসলে আমি ভেবেছিলাম, আমি যেহেতু সরাসরি চুক্তিবদ্ধ, তাই টুর্নামেন্ট শেষ হওয়ার আগে আমার পেমেন্ট পরিশোধ করা হবে। উনি ব্যস্ত থাকায় রিপ্লাই দিতে দেরি করেছেন। পরে আবার আমার সাথে কথা হয়েছে, প্রসিডিউর অনুযায়ী আমার সব কিছু পরিশোধ হবে। এটা আসলে আমি জানতাম না। সব কিছু ঠিকই আছে। আমাদের মধ্যে কোনো বিভেদ হয়নি। জাস্ট একটা নিউজ হয়েছে। ‘

Comment using Facebook