হজের সফরে ওমরা!

0
78

নওয়াপাড়া ডেস্ক

বছরজুড়ে ওমরা করা যায়। ওমরার জন্য নির্ধারিত কোনো সময় বাঁধা নেই। তবে যারা চলতি হজ মৌসুমে হজ পালনে পবিত্র নগরী মক্কায় যাচ্ছেন, তারা নিজ নিজ দেশ থেকে ওমরার ইহরাম বেঁধেই যাচ্ছেন। তারা কীভাবে ওমরা সম্পাদন করবেন?

বছরজুড়ে ওমরা পালন করা যায়। কেননা আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘হজের কয়েকটি মাস আছে সুবিধিত।’ হজের নির্ধারিত মাস তিনটি হলো- শাওয়াল, জিলকদ ও জিলহজ। ওমরা সম্পাদনে সুনির্দিষ্ট কাজের মধ্যে ২টি ফরজ ও ২টি ওয়াজিব রয়েছে। ওমরার এ ৪ কাজ ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরা হলো- ১. ইহরাম বাঁধা (ফরজ) মিকাত (ইহরাম বাঁধার স্থান) থেকে কিংবা নিজ নিজ দেশ থেকে বিমানে ওঠার আগে ইহরাম বাঁধা। ওমরার জন্য পবিত্রতা ও পরিচ্ছন্নতার লক্ষ্যে গোসল করা। সুযোগ না থাকলে অজু করা। এরপর সেলাইবিহীন দুই কাপড় পরে ইহরাম বাঁধা এবং ২ রাকাত নফল নামাজ আদায় করা। এরপর ওমরার নিয়ত ‘লাব্বাইক ওমরাতান’ উচ্চারণ করা। তারপর তিনবার তালবিয়া পাঠ করা- ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইক, লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়ান্ নিমাতা লাকা ওয়াল মুলক্, লা শারিকা লাক।’ ২. কাবা শরিফ তাওয়াফ করা (ফরজ) ৩. সাফা-মারওয়ায় সায়ী করা (ওয়াজিব), ৪. মাথা মু-ন করা (ওয়াজিব) সাফা-মারওয়া পাহাড়দ্বয় সায়ী করার পর মাথার চুল মু-ন করা আবশ্যক। মাথার চুল মু-ানোর মাধ্যমেই ওমরা পালনকারীরা ইহরাম থেকে নিজেদেরকে হালাল করবেন। আর এর মাধ্যমে সম্পাদন হবে ওমরা। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে যথাযথ নিয়মে ওমরা আদায় করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Comment using Facebook