ঝিনাইদহে আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অপরাধে বাতিল হওয়া নৌকা প্রার্থীর পক্ষে হাইকোর্টে রিট!

0
106

বিশেষ প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ
আচরণবিধি লঙ্ঘনের অপরাধে ঝিনাইদহ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আব্দুল খালেকের প্রার্থীতা ফিরে পেতে রোববার হাইকোর্টে রিট করবেন বলে জানা গেছে। গত বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিব মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনের আদেশে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়। প্রজ্ঞাপনে গত ১৮ মে প্রতিদ্বন্দ্বী সতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কাইয়ুম শাহরিয়ার জাহেদী হিজলের ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে ভাংচুর, গত বুধবার সন্ধ্যায় শহরের ধোপাঘাটা ব্রীজ এলাকায় সতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনে প্রচারণায় হামলা, মারপিট করে তার সমর্থকরা।

এর আগে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ব্যাখা চাওয়ার পর তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেন। তারপরও তার সমর্থকরা এ ধরনের কাজ পুনরায় করায় পৌরসভা নির্বাচন আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘন করায় আইনের ৩২ ধারা অনুযায়ী প্রার্থীতা বাতিল করেন। এ সংবাদ জানার পর বন্ধ হয়ে যায় প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারণা। এদিকে প্রার্থীতা বাতিলের পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দসহ মেয়র প্রার্থীর সমর্থকরা। জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর হুসাইন বলেন, আমরা মনে করি যে, আদেশ দেওয়া হয়েছে নির্বাচন কমিশন থেকে তা সম্পুর্ণ অবৈধ। আমাদের উপর অন্যায় করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আমরা নির্বাচন কমিশনেও আপিল করব এবং আমরা আইনের আশ্রয় নিব।

জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অশোক ধর বলেন, নৌকা প্রতিকের মেয়র প্রার্থী আব্দুল খালেক এমন কোন কাজ করেনি যে তার প্রার্থীতা বাতিল হতে পারে। আর ঝিনাইদহ শহরে এমন কোন ঘটনা ঘটেনি যে নির্বাচন কমিশন তার প্রার্থীতা বাতিল করলো। নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আব্দুল খালেক বলেন, আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করা হয়েছে তার সম্পুর্ণ মিথ্যা। এসব ঘটনা সম্পর্কে আমি কিছুই জানিনা। আমার কোন দলীয় সমর্থক বা কর্মী আচরণবিধি লঙ্ঘনের সাথে জড়িত না। আর আমার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমি আইনের আশ্রয় নিব। উল্লেখ্য, আগামী ১৫ জুন ঝিনাইদহ পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হওয়ার কথা রয়েছে। নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এর মধ্যে নৌকা প্রতিকের প্রার্থীতা বাতিল হওয়ায় ৩ জন ভোটযুদ্ধে লড়বেন। এরা হলেন- নারিকেল গাছ প্রতিকে সতন্ত্র প্রার্থী কাইয়ুম শাহরিয়ার জাহেদী হিজল, মোবাইল ফোন প্রতীকে মিজানুর রহমান মাসুম ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশেরে প্রার্থী হাতপাখা মার্কার সিরাজুল ইসলাম। কাইয়ুম শাহরিয়ার জাহেদী হিজল ও মিজানুর রহমান মাসুম আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী।

Comment using Facebook