বাঘারপাড়ায় চোখ উপড়িয়ে ও পুরুষাঙ্গ কেটে বৃদ্ধকে হত্যা

0
37

বাঘারপাড়া সংবাদদাতা

যশোরের বাঘারপাড়ায় নকিম উদ্দিন (৬০) নামে এক বৃদ্ধ খুন হয়েছেন। সে উপজেলার ধূপখালি গ্রাতের মৃত দলিলুদ্দিন মোল্লার পুত্র। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামে। সোমবার (৩০ মে) সকালে মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (‘খ’ সার্কেল) মুকিত সরকার। পুলিশ সূত্র জানায়, গত ২৬ মে বাঘারপাড়ার পাইকপাড়া গ্রামের ইবাদ আলী মোল্যার ছেলে বেনজীর আহমেদ ছাতিয়ানতলা বাজার থেকে ধান কাটার শ্রমিক হিসেবে নকিম উদ্দিনসহ দুই জনকে বাড়িতে নিয়ে আসে। এরমধ্যে গত ২৯ মে বিকেলে একজন চলে যায়। দুইজন রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। সোমবার (৩০ মে) সকাল ৬ টার দিকে বাড়ির মালিক বেনজীর শ্রমিকদের ডাকাডাকি করার পর কোন সাড়া না পেয়ে এগিয়ে দেখেন ঘরের দরজা খোলা।

এ সময় তিনি ভিতরে প্রবেশ করে দেখেন শ্রমিক নকিম উদ্দিন রক্তাক্ত অবস্থায় বিছানায় পড়ে আছে। পুরুষাঙ্গ কেটে, চোখ উপড়ে ও শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তার সাথে থাকা অজ্ঞাত অপর শ্রমিক খুন করে পালিয়ে যায় বলে ধারনা করা হচ্ছে। পালিয়ে যাওয়া ও বিকেলে চলে যাওয়া শ্রমিকের পরিচয় পাওয়া যায়নি। নকিম উদ্দিনের ভাতিজা সোহাগ হোসেন বলেন, আমার চাচা গত বৃহস্পতিবার বাড়ি থেকে বের হন।’ তিনি ছিলেন শান্ত প্রকৃতির মানুষ। কারও সাথে কোন বিরোধ ছিলোনা। কে বা কারা তাকে এভাবে হত্যা করলো বুঝতে পারছি না।

প্রতিবেশি মাদ্রাসা শিক্ষক ইমদাদুল হক জানান, নকিম উদ্দিন একজন কৃষক। বাড়ির অবস্থা মোটামুটি ভালো। শ্রম বিক্রি করতে দেখিনি কখনো। গত বৃহস্পতিবার তিনি স্ত্রীর কাছ থেকে একহাজার টাকা নিয়ে ‘আসছি’ বলে বাড়ি থেকে বের হন। রাতে বাড়ি না ফেরায় সব আত্মীয়ের বাড়ি খোঁজ নেন পরিবারের সদস্যরা। কোথাও মেলেনা তার হদিস। সোমবার পাওয়া যায় তার খুনের খবর।

বাঘারপাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ উদ্দিন জানান, খুনের রহস্য উদঘাটনের জন্য তদন্ত চলছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

Comment using Facebook