বাগেরহাটের ৬শ’ ৬২ ভূমিহীন পরিবার পচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার হিসেবে ঘর

0
39

চুলকাটি (বাগেরহাট) সংবাদদাতা

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় তৃতীয় পর্যায়ে ঈদ উপহার হিসেবে বাগেরহাট জেলার ৬৬২ ভূমিহীন পরিবার জমিসহ ঘর পাচ্ছেন।

ইতোমধ্যে ভূমিহীনদের জন্য টিনসেড পাকা ঘর তৈরি সম্পন্ন করেছে জেলা প্রশাসন। দুই শতাংশ জমিসহ সুদৃশ্য পাকা ঘর অপেক্ষা করছে হতদরিদ্রদের জন্য। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২৬ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে দরিদ্র পরিবার গুলোর মাঝে এই ঘর হস্তান্তর করবেন।

বাগেরহাট জেলা প্রশাসনের সূত্রে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে সারা দেশে ভূমিহীন, ভিক্ষুক ও হতদরিদ্র মানুষদের জমিসহ ঘর প্রদান করছেন সরকার। প্রকল্পের ৩য় পর্যায়ে বাগেরহাট জেলায় ১ হাজার ৯৩ জনের জন্য ঘর বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। এর মধ্যে ৬৬২টি ঘর নির্মাণ সম্পন্ন করা হয়েছে। নির্মাণ সম্পন্ন হওয়া ঘরের মধ্যে বাগেরহাট সদর উপজেলায় ৭০, মোংলায় ১৪৫, মোরেলগঞ্জে ১৮১, কচুয়ায় ২৩, ফকিরহাটে ৮০, মোল্লাহাটে ৭০, রামপালে ৬০, চিতলমারী ২৮টি এবং শরণখোলা উপজেলায় ৫টি ঘর রয়েছে।এছাড়া আগামী জুনের মধ্যে বরাদ্দকৃত অবশিষ্টঘর উপকার ভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। এদিকে ঈদের আগে পাকা ঘরে উঠার সংবাদে খুশি উপকারভোগীরা। দুই শতাংশ জমিতে নির্মাণ করা প্রতিটি বাড়িতে দুটি বেড রুম, একটা কিচেন রুম, একটা ইউটিলিটি রুম, একটা টয়লেট ও একটা বারান্দা রয়েছে। বারান্দার সামনে ফাঁকা জায়গাও রয়েছে। দুর্যোগ সহনীয় এসব ঘর হবে টেকসই এবং প্রতিটি ঘরেই থাকবে সোলার সিস্টেম আর বজ্রপাত নিরোধক ব্যবস্থা। প্রতিটি সেমিপাকা ঘরের নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ২ লক্ষ ৫৯ হাজার টাকা। এসব ব্যারাকে বসবাসরত দ্রুত সবধরণের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে আশেপাশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ, মসজিদ-মন্দিরসহ ধর্মীয় উপাষনালয়, খেলার মাঠ, ফুল-ফলের বাগান করার পরিকল্পনা রয়েছে জেলা প্রশাসনের। সেই সাথে সুপেয় পানির প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে বসানো হয়েছে নলকুপ। এদিকে সোমবার দুপুরে বাগেরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং করেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ আজিজুর রহমান। এসময়, বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ শাহিনুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট হাফিজ আল আসাদ, বাগেরেহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোছাব্বেরুল ইসলাম, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি নীহার রঞ্জন সাহাসহ স্থানীয় গনমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ শাহিনুজ্জামান বলেন, আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় ৩য় পর্যায়ে বাগেরহাটে ১০৯৩টি ঘর বরাদ্দ ছিল। ইতোমধ্যে ৬৬২টি ঘর আমরা সম্পন্ন করেছি। ২৬ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী এসব ঘর আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করবেন। ওইদিনই আমরা উপকার ভোগীদেরকে তাদের ঘর বুঝিয়ে দিব। পর্যায়ক্রমে বরাদ্দকৃত অন্য ঘরও ভূমিহীন ও হতদরিদ্রদের মাঝে প্রদান করা হবে।

Comment using Facebook