ফকিরহাটে ক্যান্সার আক্রান্ত বৈশাখীকে বাঁচাতে বাবা-মায়ের আকুতি

0
37

ফকিরহাট (বাগেরহাট) সংবাদদাতা

মাত্র ছয় বছরের ছোট্ট শিশু জান্নাতী খাতুন বৈশাখী। এই বয়সে তার সহপাঠীদের সাথে স্কুলে যাওয়া, খেলাধুলা আর ঘুরে বেড়ানোর কথা।

কিন্তু ছোট্ট বৈশাখীর বেশিরভাগ সময় কাটছে বিছানায়। প্রাণচঞ্চল ফুটফুটে এই শিশুটির ডান চোখে দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সার বাসা বেধেছে। শিশু বৈশাখী এখন জীবন মৃত্যুর সন্ধীক্ষণে এসে দাঁড়িয়েছে।

উন্নত চিকিৎসা সুবিধা পেলে হয়তো বেঁচে যেতে পাওে শিশুটির প্রাণ। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৯মাস আগে বৈশাখীর ডান চোখে টিউমার দেখা দেয়। দরিদ্র পরিবারের সন্তান হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার অভাবে সেটি ক্যান্সারে পরিনত হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে ক্যান্সারের মতো ব্যায়বহুল চিকিৎসা খরচ চালাতে গিয়ে এখন সর্বস্বান্ত দরিদ্র দিনমুজুর বাবা মোল্লা জাকির হোসেন।

শিশুটির বাড়ি বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার বাহিরদিয়া-মানসা ইউনিয়নের বাহিরদিয়া গ্রামে। অর্থের অভাবে দরিদ্র পরিবারের শিশু বৈশাখীর চিকিৎসা এখন বন্ধের উপক্রম। তার বাবা জাকির হোসেন পরের বাড়ীতে কাজ করে যা আয় করতেন তা দিয়েই চলতো পাঁচ জনের সংসার। কিন্তু মেয়ের ক্যান্সারের চিকিৎসা চালাতে গিয়ে সব আয়ের পথ বন্ধ হয়েছে হতভাগ্য বাবার। বৈশাখীর চিকিৎসার জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন মা।

ইতিমধ্যে প্রায় তিন লক্ষ টাকা চিকিৎসায় ব্যয় হয়েছে। তাই দরিদ্র বাবার পক্ষে চিকিৎসার ব্যয়বহন করা একেবারে অসম্ভব হয়ে পড়েছে। শিশুটির মাতা আসমা বেগম জানায়, জন্মের পাঁচ বছর পরই শিশুটির ডান চোখে ক্যান্সার ধরা পড়ে। প্রথম দিকে জ্বর ও শরীরে ব্যাথা অনুভব হতো। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের দেখানো হয়। বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে শিশুটির ক্যান্সার ধরা পড়ে। দীর্ঘ সময় ধরে চিকিৎসা চালাতে গিয়ে আর্থিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছের পরিবারটি। অন্যের কাছে ধারদেনা করে কোনও রকম শিশুটির চিকিৎসা সচল রেখেছেন। এখন অর্থ সঙ্কটে চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। সমাজের দানশীল ও বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আকুতি জানিয়েছে অসহায় পরিবারটি।

শিশুটিকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা-চলতি ব্যাংক হিসাব নম্বর-০৪৯১৩১০০০০৬৮৪, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, ফকিরহাট শাখা, বাগেরহাট। শিশুটির মা আসমা খাতুন-০১৯৭১-২২৪৫০৭ এই নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে দরিদ্র ও অসহায় পরিবারটি।

Comment using Facebook