মণিরামপুরে ভিজিএফ’র কার্ড নিয়ে মারামারি ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলেসহ ২ জন হাসপাতালে

0
28

স্টাফ রিপোর্টার, মণিরামপুর

মণিরামপুর উপজেলার ঢাকুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব গাজীর সাফ কথা ‘তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাননি; ফলে নৌকার ভোটে চেয়ারম্যানও নির্বাচিত হননি। তাই সরকারি অনুদান বন্টনে আওয়ামী লীগ অথবা দলটির কোন পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের সম্পৃক্ত রাখতে বাধ্য নন। আর এঅভিযোগ স্থানীয় আওয়ামী লীগসহ দলটির অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতা-কর্মীদের। অপরদিকে ইউপি চেয়ারম্যানের দাবি স্থানীয় যুবলীগ দুইশ’ ভিজিএফ এর চাউল বিতরনের কার্ড দাবি করেছেন।

জানা যায়, বুধবার সকালে এ নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে ইউপি চেয়ারম্যানের আইয়ুব গাজীর সাথে ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি শরিফুল ইসলাম বাবুর সাথে বাকবিতন্ডা হয়। এ ঘটনায় চেয়ারম্যানকে অপমান করা হয়েছে মর্মে গুজব ছড়ায় পরিষদে থাকা চেয়ারম্যান পক্ষের উজ্জল ও পরান নামের দুই যুবক। এরই জের ধরে এদিন ইফতারের পর চেয়ারম্যান আইয়ুব গাজীর ছেলে মুজাহিদুর রহমান রাসেলের নেতৃত্বে একটি বাহিনী ঢাকুরিয়া বাজারে মহড়া দেয় এবং যুবলীগ নেতা বাবুসহ কয়েক জনকে খুঁজতে থাকে। এক পর্যায়ে সুমন নামের এক যুবলীগ সদস্যকে মারপিট করে চেয়ারম্যানের ছেলে রাসেলসহ তার সাথে থাকা লোকজন। খবর পেয়ে আওয়ামী লীগ, যুবলীগসহ দলটির সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা এক হয়ে রাসেলসহ তাদেরকে ধাওয়া করে। এসময় রাসেল ও আব্দুর রাজ্জাক মারপিটের শিকার হন। রাসেলের সাথে থাকা বাকিরা পালিয়ে যায়। পরে স্বজনরা এসে রাসেল ও আব্দুর রাজ্জাককে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ইউনিয়ন যুবলীগের সহসভাপতি শরিফুল ইসলাম বলেন, তিনিসহ কয়েকজন পরিষদে গিয়ে ভিজিএফ’র কার্ড সম্পর্কে জানতে চান। এসময় চেয়ারম্যান আইয়ুব গাজী তাদের সাথে বাজে ব্যবহার করে পরিষদ থেকে চলে যেতে বলেন। ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ুব গাজী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ঠিকই কিন্তু তিনি কোন নেতিবাচক মন্তব্য না করার দাবি করে বলেন, যুবলীগ ভিজিএফ’র দুইশ’ কার্ড চাওয়ায় তিনি তা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করায় এ মারপিটের ঘটনা ঘটিয়েছে। থানার ওসি নূর ই আলম সিদ্দিকী জানান, এ ঘটনায় থানায় চেয়ারম্যান আইয়ুব গাজী অভিযোগ করেছেন।

Comment using Facebook