ফজরের ওয়াক্তের পূর্বে পবিত্র হয়ে সিয়ামের বিধান

0
25

ধর্ম ও জীবন

যার হায়েজ সুবহে-সাদেকের পূর্বে বন্ধ হয়েছে কিন্তু গোসল করেছে ফজরের ওয়াক্ত শুরু হওয়ার পর তা সিয়াম সহীহ হবে। মূল কথা হল মহিলার নিশ্চিত হতে হবে যে সে হায়েজ থেকে মুক্ত হয়েছে।

দেখা যায় অনেক মহিলা মনে করে যে তার হায়েজ বন্ধ হয়েছে অথচ তা বন্ধ হয়নি। তাই তো সাহাবায়ে কিরামের যুগে অনেক মহিলা আয়েশা (রা:) এর কাছে কাপড়ের টুকরা নিয়ে এসে তাকে দেখাতেন যে তারা হয়েজ থেকে মুক্ত হয়েছেন কিনা।

তিনি তাদের বলতেন : “তোমরা তাড়া হুড়া করে হায়েজ বন্ধ হয়েছে মনে করোনা, যতক্ষণ না শুভ্র পানি দেখ।” অতএব তাড়া হুড়া না করে মহিলাদের নিশ্চিত হতে হবে যে তার হায়েজ এ মেয়াদের জন্য একে বারে বন্ধ হয়েছে। যখন সে নিশ্চিত হবে তখন সাওমের নিয়ত করবে। যদিও সে গোসল ফজরের ওয়াক্ত আরম্ভ হওয়ার পর করে তাতে সাওমের নিয়ত করতে অসুবিধা নেই।

কিন্তু সাথে সাথে তাকে সালাতের ব্যাপারে যত্নবান হতে হবে। ফজরের সালাত ওয়াক্ত মত আদায় করার জন্য তাড়াতাড়ি গোসল করবে। কোন কোন মহিলাকে দেখা যায় তারা ফজরের ওয়াক্তের মধ্যে হায়েজ ম্ক্তু হয় কিন্তু ভালভাবে গোসল করার অজুহাতে সে সূর্য উদয়ের পর গোসল করে, এ রকম করা ঠিক নয়।

কেননা তার জন্য ওয়াজিব হল তাড়াতাড়ি গোসল করে ফজরের সালাত ওয়াক্ত মত আদায় করা। এমনিভাবে যার উপর গোসল ফরজ হয়েছে তার মাছয়ালাও অনুরূপ। সে যদি ফজরের ওয়াক্ত শুরু হওয়ার পর গোসল করে তাতে সিয়ামের নিয়ত করতে কোন অসুবিধা হবে না।

Comment using Facebook