মহেশপুরে সরকারী জমি দখল করে দোকানসহ বাড়ী নির্মান করেছে ইউপি চেয়ারম্যানের শ্যালক

0
89

সরোয়ার হোসেন, মহেশপুর

চেয়ারম্যানের চেয়ারে না বসতেই চেয়ারম্যানের শ্যালক এক ডর্জন মাদক মামলার আসামী আলী আকবার পুড়োপাড়া বাজারের সরকারী জমি দখল করে দোকার ঘরসহ বাড়ী নির্বানের কাজ শুরু করে দিয়েছেন। এভাবে প্রকাশ্যে সরকারী জমি দখল করে দোকার ঘরসহ বাড়ী নির্বানের কাজ করলেও তাদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পর্যন্ত পাচ্ছেনা।

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামীলীগের নব-নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুর রহমানের শ্যালক শ্যামনগর গ্রামের এক ডর্জন মাদক মামলার আসামী আলী আকবার পুড়োপাড়া বাজারের মাঝ খানে সরকারী দখল করে ১০/১২ জন শ্রমিক নিয়ে গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে দোকার ঘরসহ বাড়ী নির্বানের কাজ শুরু করে বলে বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান।

মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যান উপজেলা কৃষকলীগের আহবায়ক আমিনুর রহমান পুড়োপাড়া বাজারে সরকারী জমি দখল করে আওয়ামী লীগ অফিস নির্মান করেন। পরে আওয়ামী লীগ অফিস দখল করে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করেন বলেও জানান বাজারের ব্যবসায়ীরা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাজার ব্যবসায়ী সমিতির এক সদস্য জানন, দুলাভাই আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যানের চেয়ারে বসতে না বসতেই বাজারের সরকারী জমি দখল শুরু করেছে শ্যালক আলী আকবার। পরে কি হবে তা বলা যাচ্ছেনা।

আলী আকবার জানান, আমার রের্কডিয় সম্পতিতে আমি ইউনিয়ন ভুমি অফিসের কর্মকর্তাদেরকে বলেই দোকার ঘর নির্মানের কাজ শুরু করেছি। তাতে সাংবাদিকদের কি। আমি আমার জায়গায় ঘর নির্মান করবো না কি ফেলে রাখবো সাংবাদিকদের দেখার দরকার নেই।

মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান জানান, আলী আকবারের জমিতে আলী আরবার ঘর করছে ওখানে কারও কিছাই বলার নেই। তার পরও তাদের বিজ্ঞ আদালতের পর পর দুটি রায় রয়েছে। শুধু নামপত্তনটা করা নেই। তার পরও শুক্রবার দুপুরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা ও মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা এসে নির্মান কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।

তিনি আরো জানান, রোববার কাগজপত্র নিয়ে ভূমি অফিসে যেতে বলেছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা। মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা সামাউল ইসলাম জানান, সরকারী জমিতে ঘর করার অনুমতি আমরা দিতে পারিনা। আলী আকবার গোপনে ঘর নির্মানের কাজ করছিলো। পরে তা সহকারী কমিশনার (ভূমি) স্যার আর আমি এসে বন্ধ করে দিয়েছে।

Comment using Facebook