নড়াইলে সার নিয়ে ডিলার-কৃষকদের বিতর্ক যেন থামছেই না

0
30

নড়াইল সংবাদদাতা

নড়াইলে সার নিয়ে বিসিআইসি সার ডিলার ও কৃষকদের মধ্যে বিতর্ক বেশ দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। এযেন কোন ভাবেই থামছেনা। একে অপররে প্রতি কাদা ছোড়াছুড়ি করবে ব্যস্ত হয়ে পড়ছে ওইসব ডিলার ও সাব ডিলারগণ। অথচ বাজারে এমওপি সারের দাম বৃদ্ধি পেয়ে কৃষকদের ক্রয় ক্ষমতার বাহিরে চলে যাচ্ছে সেদিকে যেন কারো কোন ভ্রুক্ষেপ নেই- এমন অভিযোগ করে বলছিলেন স্থানীয়রা।

জানা যায়, বেশ কিছু দিন যাবত সাংবাদিক পরিচয়ে সার ডিলারদের নানাভাবে হয়রানী ও চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে সার ডিলাররা। এনিয়ে গতকাল মঙ্গলবার (৫এপ্রিল) বিকালে মানববন্ধনের আয়োজন করে বিসিআইসি সার ডিলাররা। তবে অজ্ঞাত কারণে গতকাল মঙ্গলবার (৫এপ্রিল) বিকালে তাৎক্ষনিক সারডিলাররা তাদের পূর্ব নির্ধারিত মানববন্ধন স্থগিত করেন। এ ব্যাপারে নড়াইল বিসিআইসি সার ডিলার সমিতির সভাপতি মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন, সম্প্রতি নড়াইল পৌরসভার উজিরপুর গ্রামের আলী মোহাম্মদ মন্ডল রূপগঞ্জ বাজারে সার কিনতে গিয়ে বেশি দামে সার বিক্রির অভিযোগ তার ম্যানেজার হিরামন এর সাথে বিতর্কে জড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় সার ডিলার হাসানুজ্জামানকে জড়িয়ে পত্রিকা, অনলাইন সংস্করণ ও ফেসবুকে নিউজ প্রকাশিত হয়। এ নিউজে সম্মানের হানি হওয়ার অভিযোগ এনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নড়াইল কণ্ঠ’র সম্পাদক কাজী হাফিজুর রহমানসহ পাঁচজনের নামে গত ২৩ মার্চ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে খুলনা সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন ওই বিসিআইসি সার ডিলার হাসানুজ্জামান। মামলা করার প্রতিবাদে নড়াইল কণ্ঠ সম্পাদকের পক্ষে গত সোমবার (৪ এপ্রিল) দুপুরে নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনে সাংবাদিক সমাজের ব্যানারে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে শনিবার (২ এপ্রিল) বেলা ১১টায় নড়াইল প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে জেলা কৃষক লীগ, জেলা মৎস্যজীবী লীগ, হিউম্যান রাইটস ডিফেল্ডার্স ফোরামের (এইচআরডিএফ) আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে নড়াইল কণ্ঠ’র সম্পাদক সহ ৫জনের নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

সার ডিলার হাসানুজ্জামান আরোও বলেন, নিউজ করে সার ডিলারদের মর্যাদা নষ্ট ও সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার পরও মানববন্ধন করে একই ঘটনা বার বার প্রচার করার কারনে সার ডিলার সমিতি মানববন্ধন করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপে আপাতত মানববন্ধন স্থগিত করা হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিসিআইসি সার ডিলার আইয়ুব খান বুলু, অলোক কুন্ডু, হাবিবুল্লাহ বাহার, জাহাঙ্গীর ভুইয়া, আব্বাচ আলী সরদার, হাফিজুর রহমান মল্লিক প্রমুখ। এদিকে মঙ্গলবার (৫এপ্রিল) সার ডিলার মোঃ হাসানুজ্জামানের বিরূদ্ধে আনিত অভিযোগের তদন্তে আসেন যুগ্ম সচিব রবীন্দ্রশ্রী বড়–য়া। তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করাসহ সংশ্লিষ্টদের বক্তব্য গ্রহন করেন। তদন্ত কর্মকর্তা ঘটনাস্থল ত্যাগ করার পর ক্ষুব্ধ সার ডিলাররা বলেন, কতিপয় ব্যক্তি সাংবাদিক পরিচয়ে দীর্ঘ দিন যাবত নানাভাবে সার ব্যবসায়ীদের ভয় ভীতি দিয়ে চাঁদা দাবি করে আসছে। প্রত্যেকটি ইউনিয়নে গিয়ে সার ডিলারদের ব্ল্যাক মেইলিং করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

এমন পরিস্থিতির মধ্যে আলী মোহাম্মদ মন্ডলের সার কেনার ঘটনাটি একেবারে নাটকীয় ভাবে সাজিয়ে নিউজ করে সার ডিলারের সম্মানের হানি ও সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করা হয়েছে বলে দাবি করেন সার ডিলার মোঃ হাসানুজ্জামান।

এদিকে স্থানীয়দের অভিমত, সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে অধিক দামে সার ক্রয়-বিক্রয় হলে তা দেখভালের দায়িত্ব কার? আর বর্তমান বাজার মনিটরিং করলে অধিক দামে সার বিক্রির প্রমাণ পাওয়া যাবে বলেও তাদের দাবি। তাছাড়া বর্তমান বাজারে এমওপি সার কত দামে বিক্রি হচ্ছে তাও খোজ নেয়ার দাবি জানিয়েছেন সাধারণ কৃষকরা।

Comment using Facebook