যৌতুক না পেয়ে শিশু শ্যালককে অপহরণের পর হত্যা

0
35

যশোর অফিস

যৌতুকের টাকা না দেয়ায় তিন বছর বয়সী শ্যালক অপহরণ করে হত্যার অভিযোগে আবু বকর ফরিদ নামে এক যুবককে আটক করেছে যশোর পুলিশ। গতকাল দুপুরে যশোর জেনারেল হাসপাতাল থেকে তাকে আটক করা হয়।

পুলিশ মৃত রেহানের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। আটক আবু বকর ফরিদ ঢাকার যাত্রাবাড়ি থানার মাতুইল জঙ্গলবাড়ি এলাকার মীর সাঈদুল ইসলামের ছেলে। সে মাদকাসক্ত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, আবু বকর ফরিদের ভাষ্য মতে সে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর থানার চরকাটারি গ্রামের ওমর বার্বুচির মেয়েকে বিয়ে করে। সম্প্রতি সে শ^শুরের কাছে কিছু টাকা দাবি করেছিলো। শ্বশুর টাকা না দেয়ায় গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় তিন বছর বয়সী শ্যালক রেহানকে অপহরণ করে সে। এরপর তাকে বাসযোগে যশোর নিয়ে আসে। পথিমধ্যে বাসের মধ্যেই মুখ চেপে সে তার শ্যালককে নানাভাবে আঘাত দিয়ে জখম করে। গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে রেহানকে দুপুরে ১২টার দিকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে নিজের সন্তান পরিচয়ে ভর্তি করে।

ভর্তির কিছু সময় পর রেহান মারা যায়। এসময় হাসপাতালে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের সন্দেহ হলে তারা আবু বকর ফরিদকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এরপর সে ওই শিশুকে অপহরণ করে নির্যাতনের বিষয়টি স্বীকার করে। যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলাল হোসেন জানান, এ ঘটনায় নিহত শিশুর পিতা আজ (গতকাল) সকালে ঢাকার যাত্রাবাড়ি থানায় মামলা করেন। আবু বকর ফরিদকে আটক করা হয়েছে। তাকে যাত্রাবাড়ি থানা পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হবে।

Comment using Facebook