রূপদিয়ায় তরমুজের জমজমাট হাট: দাম চড়া

0
60

মাসুদ পারভেজ, রূপদিয়া

যশোর সদর উপজেলার রূপদিয়া বাজারে গ্রীষ্মের রসালো ফল তরমুজের জমজমাট হাট বসেছে। কিন্তু দামে খুশি নেই ক্রেতারা।

প্রতিকেজি তরমুজের দাম ৩০টাকা। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে হাটে আসা তরমুজ ভোররাত থেকে বিকিকিনি হচ্ছে। দামও বেশ চড়া। তবে রূপদিয়ার হাটে স্থানীয় তরমুজের দেখা মেলা ভার।

গ্রীষ্মের রসালো মিষ্টি স্বাধের ফল তরমুজ। একসময় যশোর সদর উপজেলার রূপদিয়ার, নরেন্দ্রপুর, জিরাট, বলরামপুর, খাটরার বিল, ঘোড়াগাছা, কচুয়াসহ এ সব এলাকায় ব্যাপক চাষ হত। এখানকার মাটি ও আবহাওয়া ভাল থাকায় তরমুজ খেতে যেমন সুস্বাধু ছিল। ঠিক মানও ভাল ছিল। গাছে ধরনও ভাল ছিল।

তবে কয়েক বছরের ব্যবধানে তরমুজের আবাদ হারিয়ে গেছে। কিন্তু হারায়নি হাটের ঐতিহ্য। এখনও রূপদিয়া বাজারে অবস্থিত তরমুজ-বাঙ্গির পাইকার মোকামে বিকিকিনি হচ্ছে। সিজনের শুরু থেকে’ই কুয়াকাটা, বরিশালসহ বিভিন্ন সব অঞ্চল থেকে ট্রাক যোগে খেতেল’রা সরাসরি রূপদিয়া বাজারে নিয়ে আসে। এখান থেকে পাইকার’রা নিয়ে যায় বাংলাদেশের রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলা শহরে।

প্রত্যেক বছরের ন্যায় এবারও জমজমাট হয়ে উঠেছে রূপদিয়াস্থ বৃহত্তম তরমুজের এই মোকাম। কাকডাকা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত পাইকারী ও খুচরা বেচাকেনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসা ক্রেতা ও বিক্রেতারা। বৃহত্তর যশোর জেলা শহরের নিকটবর্তী সুন্দর পরিবেশ ও যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাল হওয়ায় কারণে দূরদুরান্ত থেকে ব্যবসায়ীরা মৌসুমের শুরু থেকে রূপদিয়ার এ বাজারে ব্যবসা করাতে আসেন। রূপদিয়াবাসীর ভাষ্য মতে, বছরের মৌসুমী ফল তরমুজ, বাঙ্গি, আম, কাঁঠালসহ বিভিন্ন ফল-ফলাদি ওঠার আগ মুহুর্তে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ব্যাপারীরা এ বাজারে এসে দোকান ঘর, গোডাউন এমনকি খালি যায়গাও চুক্তিতে ভাড়া করে অস্থায়ীভাবে আড়ৎ স্থাপন করে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে অনেক বছর ধরে। বছরের শুরু থেকে’ই মিষ্টি স্বাধের রসালো ফল তরমুজের চালান আসতে শুরু করেছে গাড়ি-গাড়ি। তরমুজ ব্যবসায়ি রুবেল হোসেন বলেন, আগের মত রূপদিয়ার হাটে স্থানীয় তরমুজ আসে না। কারণ এই অঞ্চলে এখন তরমুজের চাষ হয় না। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এখানে আসে। সেই তরমুজ পাইকারি ও খুচরা বিক্রি হয়। রূপদিয়া বাজারের তরমুজ ব্যবসায়ী সেলিম হোসেন বলেন, বর্তমানে দক্ষিণঞ্চলের ভোলা, পটুয়াখালী, কুয়াকাটা, রাঙাবালী, কুরালিয়া, পানপুরি, পৈক্কা থেকে প্রত্যেক দিন কয়েক গাড়ি তরমুজ রূপদিয়ার বাজারে আসলেও এখন বেশিরভাগ’ই আসছে কুয়াকাটা থেকে। মোকামে নিয়ে আসার সাথে-সাথে পাইকারি ও খুচরা বিক্রেতাদের মাধ্যমে যশোরসহ বিভিন্ন জেলার হাট-বাজারে পৌছে যাচ্ছে। কবির হোসেন নামের আরেক ব্যাপারী জানান, ভরা মৌসুম থেকে এই বাজারটিতে গড়ে প্রতিদিন ৮ থেকে ১০ ট্রাকের মত তরমুজ বিক্রি হয়। বড় আকৃতির ১শ’ পিচ তরমুজ ২২ থেকে ২৫ হাজার টাকা, (৫ কেজি ওজনের) ১শ’ পিচ ১৪ থেকে ১৬ হাজার টাকা ও তার নিচের ওজনেরগুলো ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা পর্যন্ত পাইকারি দরে বিক্রি হচ্ছে।

ক্রেতাদের মাঝে সাধারণত বাংলালিং ও কালো জাতের তরমুজের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। ব্যবসায়ীদের দাবি এক নাগাড়ে ৪ মাস অর্থাৎ জ্যৈষ্ঠ মাসের শেষ পর্যন্ত এই মোকামে ভরপুর বেচাবিক্রি চলবে রূপদিয়ার এই তরমুজের হাটে।

Comment using Facebook