কালিয়ায় স্ত্রীর স্বীকৃতি না পাওয়ায় গৃহবধুর আত্মহত্যা

0
51

নড়াইল সংবাদদাতা

নড়াইলের কালিয়ায় স্বামীর স্বীকৃতি না পেয়ে বিয়ের তিন মাস পর বিষপানে জেসমিন খানম (২৫) নামের এক গৃহবধূর আত্মহত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) রাতে ১০টার দিকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গৃহবধূ মারা যায়। সে কালিয়া উপজেলার নড়াগাতি থানার মাউলী ইউনিয়নের মহাজন উত্তর পাড়া গ্রামের মৃত বজলুর রহমান মোল্যার মেয়ে। ঘটনার পর থেকে নিহতের কথিত স্বামী মনির খাঁন পলাতক রয়েছে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, গত ৩ মাস আগে প্রেমের সম্পর্কের জেরে একই গ্রামের রিয়াজ খাঁনের ছেলে মনির খাঁনের সঙ্গে জেসমিনের বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের দুইদিন পর থেকে মনির জেসমিনের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এমনকি তাকে ঘরে তুলতেও অস্বীকৃতি জানায়। তার পরিবারকে বিষয়টি জানালে এ বিয়ে তারাও মেনে নেয়নি। এ অপমানে সইতে না পেরে গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে জেসমিন নিজ বাড়িতে বিষপান করে।

পরিবারের লোকজন তাকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহতের মা সুখমতি বেগম বলেন, আমরা গরীব মানুষ বলে মনিরের পরিবার আমার মেয়েকে নিবে না বলে জানায়। গ্রামের অনেকের কাছে ধর্ণা দিয়েছি কিন্তু কেউ আমাদের কথা শোনেনি।

নিহতের বড় বোন সালমা বেগম অভিযোগ করে বলেন, ভালোবেসে বিয়ে করে আমার বোন স্ত্রীর স্বীকৃতি না পেয়ে আত্মহত্যা করেছে। এটি আত্মহত্যা নয় হত্যা। আমি এর বিচার চাই। এ বিষয়ে লোহাগড়া থানার ওসি শেখ আবু হেনা মিলন বলেন, মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comment using Facebook