দৌলতপুর উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

0
41

খুলনা ব্যুরো

খুলনা মহানগরের দৌলতপুর উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে অনিয়ম ও দুর্নীতি চলছে সমানে। কর্মকর্তাদের লাগাতার অনুপস্থিতির কারণে এখানে আর সেবা নিতে আসেন না কেউ। এ প্রতিবেদক শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত সরেজমিনে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটিতে অবস্থানকালে একজনও সেবা প্রার্থীর দেখা মেলেনি।

এলাকাবাসী জানান, স্বাস্থ্য কেন্দ্রটিতে দায়িত্বপ্রাপ্তরা উপস্থিত না থাকায় এখানে এখন আর কেউ সেবা নিতে আসতে চান না। একেবারে নেহাত কেউ আসলেও ১৭টি সরকারি ওষুধ এর মধ্যে শুধু প্যারাসিটামল ও এন্টাসিড এ দুটি ওষুধ মেলে এখানে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়। এলাকাবাসী আরও জানান, এ কেন্দ্রের ফার্মাসিস্ট নাসরিন আক্তার একই স্থানে দীর্ঘ ২০ বছরের ও বেশি সময় চাকরি করায় সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অধিকাংশ ওষুধ পাচার করেন। উপ-সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা প্রীতিলেখা মৃধা মাসের অধিকাংশ সময় অনুপস্থিত থাকেন। তখন অফিস সহকারি শামীম সবকিছু সামলান।

অভিযোগ রয়েছে, প্রীতিলেখা মৃধা স্বামীর পরিচয় জাহির করে মাসের অধিকাংশ দিন বাড়িতেই অবস্থান করেন। এ ব্যাপারে এ প্রতিবেদক বক্তব্য জানতে তার সঙ্গে যোগাযোগ করলে, তার স্বামী একজন প্রভাবশালী এনজিও কর্মকর্তা দাবি করে তিনি বলেন, আমার স্বামীর সঙ্গে অনেক সাংবাদিকের পরিচয় রয়েছে। আপনারা তার সাথে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করেন।

একপর্যায়ে তিনি নিজের দুর্নীতি ঢাকতে কয়েকজন সাংবাদিককে কৌশলে’ তার কাছে আগমনের বিষয়ে অবহিত করে নিজেকে জাহির করার চেষ্টা করেন। স্বাস্থ্য কেন্দ্রটির অপর উপসহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (চলতি দায়ি়ত্বে) নিলুফা ইয়াসমিন ও তার অনুপস্থিতি প্রসঙ্গ এড়িয়ে একজন স্থানীয় সাংবাদিকের পরিচয়ে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করেন।

এ ব্যাপারে দিঘলিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মো. মাহবুবুল আলম জানান, বিষয়টি আমার জানা ছিল না। এব্যাপারে জেলা সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদ বলেন, বিষয়টি সত্য হলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

Comment using Facebook