যশোরে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর পেটে লাথি মেরে ভ্রূণ হত্যা

0
145

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর

যশোরে যৌতুক না পেয়ে নুর জান্নাতি (২৪) নামে এক গৃহবধূকে মারপিট করে পেটের সন্তান নষ্ট করার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী তোহিদুর রহমানের (২৮) বিরুদ্ধে।

আহত ওই গৃহবধূ বর্তমানে যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। পুলিশ অভিযুক্ত তহিদুর রহমানকে আটক করেছেন। রবিবার যশোর জেলা বাঘারপাড়া উপজেলার মহিরন গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে।

প্রথমে তাকে বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়েছে।

ভুক্তভোগী ঢাকা যাত্রাবাড়ি এলাকার আব্দুল মালেকের মেয়ে নুর জান্নাতি অভিযোগ করেন, গত সাত মাস আগে যশোর বাঘারপাড়ার মহিরন গ্রামের মোনাজাত ফকিরের ছেলে তহিদুর রহমানের সাথে তার সামাজিকভাবে বিয়ে হয়। এরই মধ্যে তিনি আড়াই মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

বিয়ের পর থেকেই তহিদ যৌতুকের দাবিতে তাকে মারপিট করতেন। সর্বশেষ গত রবিবার সকালে তহিদ তাকে এলোপাতাড়ি মারপিট করেন। এক পর্যায় তার তলপেটে লাথি মারেন।এসময় তার রক্তক্ষরণ শুরু হয়। স্থানীয়দের সহযোগিতায় প্রথমে বাঘারপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। পারে অবস্থা আরো খারাপ হলে ডাক্তার যশোর জেনারেল হাসপাতালে রেফার করেন।

যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হলে হাসপাতালে এসেও তোহিদ তাকে জীবননাশের হুমকি দেন। যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার আহম্মেদ তারেক শামস গায়নি বিভাগের ডাক্তারের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, জান্নাতি মঙ্গলবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তার শরীরের অবস্থা কিছুটা উন্নতির দিকে।

তবে ২৪ ঘন্টা পার না হলে কিছু বলা যাচ্ছে না। জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের এসআই মফিজুল ইসলাম বলেন, হাসপাতাল থেকে অভিযুক্ত তহিদকে আটক করা হয়েছে। এঘটনায় বাঘারপাড়া থানায় নিয়মিত মামলা হওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

Comment using Facebook