মায়ের কিডনি দিয়েও বাঁচানো রাহুলকে

0
57

কোটচাঁদপুর সংবাদদাতা

মায়ের কিডনি স্থাপন করেও বাঁচাতে পারেনি মাদ্রাসা শিক্ষার্থী একমাত্র ছেলে রুহুল আমিন রাহুল (২০) কে। দীর্ঘদিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জালড়ে রোববার সন্ধায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) মারা যায়।

একমাত্র সন্তানকে হারিয়ে পাগল প্রায় রাহুলের বাবা-মা। এলাকা ও সহপাঠিদের মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। সে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদারপুর বাজারের আসাদুল মন্ডলের ছেলে ও কোটচাঁদপুর কামিল মাদ্রাসার ফাজিল ১ম বর্ষের পরিক্ষার্থী। সোমবার সকালে জানাযার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

রাহুলের চাচাতো ভাই স্থানীয় ইউপি সদস্য আবু সাঈদ জানান, কয়েক বছর যাবৎ রাহুল কিডনি রোগে ভূগছিলো। দেশে চিকিৎসা শেষে উন্নতর চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয় ভারতের ভেলোরে। সেখানেও পরিক্ষা-নিরিক্ষা শেষে কিডনির সমস্যার বিষয়ে নিশ্চিত হয়।

চিকিৎসকরা জানান, কিডনি প্রতিস্থাপন ছাড়া সুস্থ্য হবে না।

নিজের সন্তানকে বাঁচাতে মা আকলিমা খাতুন সিদ্ধান্ত নেন নিজেই কিডনি দিবেন একমাত্র ছেলেকে। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে দেশের একটি হাসপাতালে মায়ের কিডনি ছেলে রাহুলের শরীরে প্রতিস্থাপন করা হয়।

পরবর্তিতে কিছুটা উন্নতি হলেও পূণরায় গুরতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে সে। নেওয়া হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। রোববার সন্ধায় সেখানেই চিকিৎসারত অবস্থায় সে মারা যায়।

Comment using Facebook