ঝিনাইদহের সেই প্রতারক রুবেলের বিরুদ্ধে এবার বাড়ীঘর ভাংচুরের অভিযোগ

0
58

বিশেষ প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহে জমি বিক্রির নামে আমেরিকা প্রবাসী এক ব্যবসায়ীর ৬০ লাখ টাকা আত্মসাতের পায়তারা করা প্রতারক ইয়াদুর রহমান রুবেল, তার ভাই রয়েল ও ফজলুর রহমানের বিরুদ্ধে এবার বাড়ীঘর ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীরা ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি ডায়েরী করেছেন। ভুক্তভোগীরা হলো- গোপিনাথপুর এলাকার ওয়াদুদ শেখ ও সমসের আলী। ভুক্তভোগী ওয়াদুদ শেখ জানান, ২০০৯ সালে জাকির হোসেন টিটো নামের এক ব্যক্তি তার ক্রয়কৃত গোপিনাথপুর মৌজার এসএ ১২৪/২ নম্বর খতিয়ানভুক্ত ৪২৯ নম্বর আরএস, ৮৬৫ নম্বর দাগের ২২ শতক জমিতে ওয়াদুদ শেখ ও সমসের আলীকে ঘর করে বসবাসের জায়গা করে দেয়। তারা সেখানে থেকে ওই জমি দেখাশোনা করে আসছিল।

বেশ কিছুদিন যাবত জমি নিজেদের দাবী করে প্রতারক রুবেল ও তার সহযোগিরা তাদের সেখান থেকে উচ্ছেদ করার হুমকি দিয়ে আসছিল। গত ৬ মার্চ রাতে রুবেল ও তার সহযোগীরা ভেকু মেশিন দিয়ে তাদের বাড়ি ঘর ভাংচুর করে। সেসময় তাদের আত্মচিৎকারে আশ পাশের লোকজন ছুটে এলে তারা চলে যায়।

ভুক্তভোগী সমসের আলী বলেন, আমাদের বাড়ি ঘর ভাংচুর করা হয়েছে। প্রতিবাদ করায় আমাদের নানা ভাবে হুমকি দিচ্ছে তারা। আমরা জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত রুবেলের সাথে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেন নি। প্রতারক রুবেলের বিরুদ্ধে এর আগেও ছিল নানা অভিযোগ।

ঝিনাইদহ শহরের পবহাটি এলাকার আমেরিকা প্রবাসী ব্যবসায়ী বদিরুজ্জামান সদর উপজেলার লক্ষীকোল গ্রামের মৃত এনায়েতুর রহমানের ছেলে ইয়াদুর রহমান ওরফে রুবেলের কাছ থেকে ২০১৭ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি ১২১ শতক জমি ক্রয়ের জন্য ৩৫ লাখ টাকা বায়নানামা করে।

পরবর্তীতে ওই বছরের ৫ অক্টোবর ১৫ লাখ ও ২০১৮ সালের ৪ মার্চ আরও ১০ লাখ টাকা ইয়াদুরকে দেন ওই ব্যবসায়ী। জমি কেনা বাবদ ইয়াদুরকে ওই ব্যবসায়ী সর্বমোট ৬০ লক্ষ টাকা দেন। কিন্তু দিনের পর দিন পেরিয়ে গেলেও জমি না দিয়ে ওই টাকা আত্মসাতের পায়তারা শুরু করেছে প্রতারক ইয়াদুর রহমান।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, সোমবার রাতে এক ব্যক্তি থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন। আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নিব।

Comment using Facebook