সুন্দরবনে অবৈধভাবে মাছ ও কাঁকড়া আহরন: আটক ২১ জেলে

0
59

হাফিজুর রহমান, সাতক্ষীরা

সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জে গহীনে অবৈধভাবে মাছ ও কাঁকড়া আহরনের সময় ২১ জেলেকে আটক করেছে বনবিভাগ ও স্মাট পেট্রোল টিমের সদস্যরা। মঙ্গলবার ভোর রাতে ঘন্টা ব্যাপি অভিযানে সুন্দরবনের ডিঙিমারি খাল ও মাহমুদা নদী হতে তাদের আটক করা হয়।

এ সময় জেলেদের ব্যবহৃত ৬টি নৌকা, ৩০০ কেজি কাঁকড়া, দা, বৈঠা ও ড্রামসহ আনুসঙ্গিক মালামাল জব্দ করে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা। আটককৃত জেলেরা হলেন, শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জ মোল্লা পাড়া গ্রামে আবু বক্কর গাজীর ছেলে মোক্তার হোসেন (৪৫), একই উপজেলার মীর গাং গ্রামের গফুর শেখের ছেলে নুরুজ্জামান শেখ (৩৮), আবু বক্কর তরফদারের ছেলে শুকুর আলী (৪২), রেজাউল পাইকের ছেলে শাহিন পাইক (৩৫), ফজলু কবিরের ছেলে রিপন ফকির (৩০), শাহাজান গাজীর ছেলে শাহিনুর রহমান (৩৮), মোকছেদ শেখের ছেলে আজিবর শেখ (৪০), ইব্রাহিম গাজীর ছেলে মাজেদ গাজী (৪২) আবুল শেখের ছেলে আবু সাঈদ শেখ (৪১), কুরবান গাজীর ছেলে কওছার গাজী (৩৫), মোকছেদ গাজীর ছেলে আদম গাজী (৩০), করিম মোল্লার ছেলে সাত্তার মোল্লা (৪২), ৫নং কয়রা গ্রামে এনছার আলীর ছেলে জিন্নাত আলী (৩৩), নাপিত খালি গ্রামে ইউনুচ মোড়লের ছেলে আকছেদ মোড়ল (৩৯), বড় ভেটখালী গ্রামের যবু সানাহ ছেলে উদয় সানা (৩৫) ও সুদয় সানা (৩৭), কাটাখালী কয়রা গ্রামে হাতেম মিস্ত্রির ছেলে হালিম মিস্ত্রি (৪৫), ছোট ভেটখালী গ্রামে সোলাইমান গাজীর ছেলে জিয়াউর রহমান (৪৮), জয়াখালী গ্রামে শামিম গাজীর ছেলে ছাকাত গাজী (৩৫) খলিসাবুনিয়া গ্রামে খালেক মোল্লার ছেলে নুরুজ্জামান মোল্লা (৩৩) ও ডুমুরিয়া গ্রামের মৃত সুরত আলী গাজীর ছেলে মিনহাজ গাজী (৩০)।

বনবিভাগ জানায়, মাছ ও কাঁকড়ার প্রজনন বৃদ্ধির জন্য বন বিভাগের বিশেষ বাহিনী ও স্মার্ট টিমের সমন্বয়ে যৌথ বাহিনী সুন্দরবনে অভিযান শুরু করে। এই অভিযানে ভোর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফরেস্ট গার্ড (এফজি) হারুন-অর-রশিদ ও স্টেশন কর্মকর্তা (এসও) জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বে যৌথ বাহিনীর সদস্যরা সুন্দরবনের ডিঙিমারি খাল ও মাহমুদা নদীতে অভিযান চালিয়ে উক্ত ২১ জেলেকে আটক করেন।

এ সময় জব্দ করা হয় জেলেদের ব্যবহৃত ৬টি নৌকা, ৩০০ কেজি কাঁকড়া, দা, বৈঠা ও ড্রামসহ আনুসঙ্গিক মালামাল জব্দ। সুন্দবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) এম.এ হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত জেলেদের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Comment using Facebook