যশোরের শিশু হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া নবজাতক উদ্ধার

0
65

যশোর অফিস

যশোরের শিশু হাসপাতাল থেকে চুরি হওয়া ছেলে শিশুটিকে ২৪ ঘন্টা পর উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুর ১টার দিকে মাগুরার শালিখা উপজেলার শতখালী গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। তাকে ফের যশোর শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সন্তান ফিরে পাওয়ায় আনন্দে আত্মহারা তার পিতা-মাতাও স্বজনরা।

তবে উদ্ধারের বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হয়নি পুলিশ। গতকাল রবিবার যশোর শিশু হাসপাতাল থেকে চিকিৎসাধীন ৬দিন বয়সী সন্তানের ছাড়পত্র নেন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার খয়লা গ্রামের বাসিন্দা জনি হোসেন ও তার স্ত্রী আসমা বেগম।

বাড়ি যাওয়ার প্রস্তুতিকালে অপরিচিত এক নারী শিশুটিকে কৌশলে তার নানীর কোল থেকে নিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনার পরপরই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে পুলিশ। এরপর গতকাল বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মাগুরার শালিখা উপজেলার শতখালী গ্রামের লোকজন স্থানীয় থানায় বাচ্চা পাওয়ার কথা জানায়। এরপর পুলিশ গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে। এদিকে নবজাতককে উদ্ধারের পর ফের যশোর শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ২৪ ঘন্টার বেশি সময় না খেয়ে থাকায় তার অবস্থার অবনতি হয়েছে। একদিন পর সন্তানকে ফিরে আনন্দে আত্মহারা তার পিতা-মাতা ও স্বজনরা।

আসমা বেগম ও জনি হোসেন পিতা-মাতা, তবে শিশু উদ্ধারের ঘটনায় কোন বক্তব্য দিতে রাজি হয়নি যশোর কোতোয়ালী থানার ওসি তাজুল ইসলাম।

আসমা বেগম গত ২৮শে ফেব্রুয়ারি ঝিনাইদহের কালিগঞ্জের কুইন্স নামে একটি ক্লিনিকে সন্তান প্রসব করেন। বাচ্চাটি প্রসবের পর দুর্বলতাজনিত অসুস্থ হওয়ায় তাকে পরের দিন যশোর শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিলো।

Comment using Facebook