কেশবপুরে বীর নিবাস নির্মাণের উদ্বোধন

0
51

স্টাফ রিপোর্টার, কেশবপুর

কেশবপুর উপজেলা প্রশাসনের বাস্তবায়নে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রনালয় ১ কোটি ৭ লাখ ৪৮ হাজার ৯ শত ৪৪ টাকা ব্যায়ে ৮ জন অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন “বীর নিবাস” প্রকল্পের আওতায় বসতবাড়ি নির্মাণের কাজ শুরু করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সুজাপুর গ্রামের অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা মোবারেক হোসানের বসতবাড়ি নির্মাণের কাজ আনুষ্ঠানিক ভাবে ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেন যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে সংসদ সদস্য ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম, উপজেলা প্রকৌশলী সায়ফুল ইসলাম মোল্যা, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউল হাসান হ্যাপী, অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার অলিয়ার রহমান, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও কেশবপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মশিউর রহমান সাগর, কেশবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ স্বপন কুমার মুখার্জী, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. হুসাইন মোহাম্মদ ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, কেশবপুর সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ইউপি সদস্য কামরুজ্জামান কামাল, পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ। উল্লেখ্য কেশবপুর উপজেলা প্রশাসনের বাস্তবায়নে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রনালয় ১ কোটি ৭ লাখ ৪৮ হাজার ৯ শত ৪৪ টাকা ব্যায়ে গৌরীঘোনা ইউনিয়নের ডহুরী গ্রামের অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা কালী পদ মন্ডল, সাগরদাঁড়ী ইউনিয়নের চিংড়া গ্রামের অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ ও সাগরদাঁড়ী গ্রামের অস্বাচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা নিমাই দেবনাথ, বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নের হাড়িয়াঘোপ গ্রামের অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা সুভাষ দেবনাথের পূত্র দুলাল দেবনাথ, মজিদপুর ইউনিয়নের পাত্রপাড়া গ্রামের অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন সরদারের পক্ষে আশরাফুন্নাহার, হাসানপুর ইউনিয়নের মহাদেবপুর গ্রামের অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, পাঁজিয়া ইউনিয়নের মাদারডাঙ্গা গ্রামের অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ফকিরের পূত্র মমরেজ ফকির ও কেশবপুর সদর ইউনিয়নের সুজাপুর গ্রামের মোবারেক হোসেনকে বাড়ি নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে।

Comment using Facebook