হরিণাকুন্ডুতে বেপরোয়া সাবেক চেয়ারম্যান মনজের: মারপিট

0
46

বিশেষ প্রতিনিধি, ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডুতে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে মনোনয়ন ফর্ম ক্রয়ে বাধা সৃষ্টি করেছে সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম মনজের’র ভাড়াটিয়া বাহিনিরা। এমনকি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে মনোনয়ন কিনতে আসা এক প্রার্থীকে বেধঢ়ক মারপিট করে তার ওই বাহিনী।

জানাযায়, আগামী ১৯ মার্চ হরিনাকুন্ডু উপজেলার ধুলিয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। সে মোতাবেক গত ২৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনি তফশিল ঘোষনা করা হয়। যার মনোনয়ন ফর্ম বিক্রি করা হচ্ছিল উপজেলা মাধ্যমিক অফিসে। বুধবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মনোনয়ন কিনতে ওই এলাকার কাজী রাসেল আহম্মেদ মিন্টু ও আরিফুল ইসলাম দুই ব্যক্তি ফর্ম কিনতে আসে। সেখানে আগে থেকে ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনী বসিয়ে রাখে তাহেরহুদা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জরুল আলম মনজের। বিকেলে ফর্ম কিনতে গেলে উপজেলা মোড়ে মিন্টুকে ধাওয়া করে। সেখান থেকে একটি দোকানে আশ্রয় নিলে তাকে বেধঢ়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মিন্টুকে উদ্ধার করে। ভুক্তভোগী কাজী রাসেল আহম্মেদ মিন্টু অভিযোগ করে বলেন, ধুলিয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে আমি নির্বাচনের জন্য ফর্ম কিনতে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম মনজেরের অর্থের বিনিয়ে কিছু গুন্ডাকে ভাড়া করে রেখেছে। ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনিরা আমাকে বলে তুই ফর্ম কিনতে পারবি না। আমরা মনজেরর লোক। এক মাত্র ওই ব্যাক্তি ফর্ম কিনে সভাপতি পদে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হবে।

আমি এ বিষয়ে হরিনাকুন্ডু থানায় ও মাধ্যমিক শিক্ষা আফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছি। আমি এ নির্বাচন বন্ধের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কমনা করছি। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে অন্যপ্রার্থী আরিফুল ইসলাম বলেন, আমিও ফর্ম কিনতে যেয়ে মনজেরের ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনির বাধার মুখে ফিরে আসি। অভিযুক্ত সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম মনজের বলেন, আমি নিজে সভাপতি প্রার্থী। আপনারা এ বিষয়টি নিয়ে কিছু কইরেন না।

এ ব্যাপারে হরিনাকুন্ডু উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফজলুল হক বলেন, আমি একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমার অফিসের ভিতর কোন ঘটনা ঘটেনি। বাহিরে যদি কিছু ঘটে সেটা আমার বিষয় না। তবে সকল বিষয়টি আমি থানার ওসি ও ইউএনওকে অবগত করেছি। হরিনাকুন্ডু থানার ওসি আব্দুর রহিম মোল্লা বলেন, আমি বিষয়টি সম্পর্কে অবগত আছি। ঘটনাস্থলে কয়েক দফা পুলিশ পাঠিয়েছি।

হরিনাকুন্ডু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সেলিম আহম্মেদ বলেন, সকল বিষয়ে আমি অবগত আছি। মনোনয়ন ফর্ম ক্রয়ের জন্য সুষ্ঠ পরিবেশ বজায় রাখতে ওসি ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশনা দিয়েছি। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

Comment using Facebook