বেনাপোল বন্দরে কোন ভাবেই বন্ধ হচ্ছেনা মিথ্যা ঘোষণায় পণ্য আমদানি

0
58

বেনাপোল সংবাদদাতা

বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে বন্ড লাইসেন্সের বিপরীতে মিথ্যা ঘোষণায় আমদানি করা ডেনিম ফেব্রিকস’র পন্য চালানের ভেতর ফেনসিডিল, বিস্ফোরক দ্রব্য, সিগারেট, কারেন্ট জালসহ ৫০ লাখ টাকার আমদানি নিষিদ্ধ এক ট্রাক পন্য জব্দ করেছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

বেনাপোল কাস্টমস হাউসের যুগ্ন কমিশনার আব্দুর রশিদ মিয়া জানান, গোপন সংবাদ পেয়ে গতকাল বুধবার দুপুরে ভারত থেকে ডাব্লুইবি ২৩সি ১৬১৫ নাম্বারের একটি ট্রাক ডেনিম ফ্রেব্রিকস’র দুটি চালান নিয়ে বন্দরে প্রবেশের সময় কমিশনার আজিজুর রহমানের নির্দেশে ট্রাকটি আটক করা হয়। পরে কাস্টমস’র আইআরএম টিমের তত্বাবধানে ট্রাকটি তল্লাশী করে আমদানি নিষিদ্ধ পন্যসহ ভারতীয় ট্রাকসহ ২ কোটি টাকার পণ্য আটক করা হয়। যার মূল্য ৫০ লাখ টাকা বলে কাস্টমস সূত্র জানায়। আটক পণ্যচালানের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান, ঢাকার অনন্ত ফ্যাশন লি: ও ফ্যাশন ফরম লি: ডেনিম ফেব্রিকস আমদানি করলেও পন্যচালানের ভেতর পাওয়া যায় আমদানি নিষিদ্ধ পন্য।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, আমদানিকৃত পন্যচালানের আড়ালে আমদানি নিষিদ্ধ পন্য ভারতের ট্রান্সপোট মালিকরা সরাসরি জড়িত। ট্রাকের ড্রাইভার হেলপারকে আটক করে, তার জবানবদ্ধি গ্রহন করা হলে আসল ঘটনাধরা পড়বে। যুগ্ন কমিশনার আব্দুর রশিদ মিয়া আরও জানান, বেনাপোল বন্দরে জিরো টলারেন্স ণীতি অনুসরন করা হচ্ছে। আমদানিকারকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। বাতিল করা হবে সংশ্লিস্ট সিএন্ডএফ লাইসেন্স। আজই তা কার্যকর করা হবে।

বেনাপোল কাস্টম হাউসের কমিশনার মো: আজিজুর রহমান জানান, আমদানিকৃত পণ্যটি আমদানি নিষিদ্ধ সেজন্য জনস্বার্থে নিরাপত্তার বন্দরের হেফাজতে রাখা হয়েছে। বেনাপোল বন্দর দিয়ে ট্রেডকে ফেসিলিটেড করা হবে সৎ ব্যবসায়ীদের জন্য। কোন অবস্থাতেই বন্দরকে চোরাচালানীদের নিরাপদ মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করতে দেয়া যাবে না।

Comment using Facebook