সন্ত্রাসী কায়দায় কোন শ্রমিক সংগঠন চলবে না: শাহাজান খান

0
49

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি ও সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান খান বলেছেন, ‘সন্ত্রাসী কায়দায় শ্রমিক সংগঠন চলবে না।

শ্রমিকরা জনগনের সেবক। সেবা দিয়ে সাধারণ মানুষের মন জয় করবে। মানসম্মত সেবা দিয়ে সবার আস্থাভাজন হবে। যাত্রীদের হয়রানি করা যাবে না।

সন্ত্রাস ও ফ্যাসীবাদের মাধ্যমে কোন পেশাজীবী সংগঠনের উন্নয়ন হতে পারে। শ্রমিক সংগঠনের নামে চিরতরে সবস্থান থেকে চাঁদাবাজী বন্ধ করতে হবে।

ফ্যাসীবাদের মাধ্যমে কখনো যোগ্য নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত হয় না। শ্রমিকদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেক নজর রয়েছে। আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হলে শ্রমিকদের কখনো বিপদে পড়তে হবে না। সংগঠনটির খুলনা বিভাগীয় ত্রি-বার্ষিক আঞ্চলিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে এ কথা বলেন তিনি। সংগঠনটির বিভাগীয় সভাপতি রবিউল হোসেন রবির সভাপতিত্বে তিনি বলেন, ‘করোনা প্যাকেজ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী খুব অল্প সময়ের মধ্যে ৩৫ লাখ শ্রমিকে অনুদান দেবেন। শ্রমিকদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য গণভবন বেশ কড়াকড়ি করা হচ্ছে। সেইজন্য শ্রমিকদের দ্রুতই জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ, নিয়োগপত্র সঠিকভাবে প্রস্তুত রাখতে হবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র ও জন্ম নিবন্ধনের সব ধরণের ভুল ত্রুটি সংশোধন করতে হবে। সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকারি সভাপতি আব্দুর রহিম বক্স দুদু ও খুলনা বিভাগীয় সাবেক সভাপতি শ্রী ভূষণ ঘোষ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক নেতা এম জেনারেল ইসলাম, এমদাদুর রহমান, সাদেক আহমেদ, আজিজুল আলম মিন্টু, কাজী গোলাম মোস্তফা, আলমগীর সিদ্দিকী আলম, বিশ্বনাথ ঘোষ, মিজানুর রহমান, রবিন অধিকারী বেচা, বাবু মিয়া, আফজাল হোসেন, আনিসুর রহমান কেনা, রিন্টু মিয়া, বাহারুল ইসলাম, মকবুল হোসেন, জাহাঙ্গীর আলম সাগর, দাউদ হোসেন, অলিয়ার রহমান, মীর মোকছেদ আলী, শফিকুর রহমান খান, শেখ আবু সাঈদ, শাহাঙ্গীর হোসেন শাহীন, রাকিব উদ্দিন প্রমুখ। সম্মেলন থেকে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের বিভাগীয় কমিটিতে পাঁচজনের নাম ঘোষণা করেন। সেখানে আজিজুল আলম মিন্টুকে উপদেষ্টা, রবিউল হোসেন রবিকে সভাপতি, আব্দুর রহমান বক্স দুদুকে সাধারণ সম্পাদক, সাদেক আলীকে সহ-সভাপতি ও আলমগীর সিদ্দিকী আলমকে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক করেন।

Comment using Facebook