কালীগঞ্জে ধান ক্ষেতে বিষ প্রযোগে দেড়শতাধিক হাঁসের মৃত্যু

0
47

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা

দিনমুজুর আশানুরের স্ত্রী আম্বিয়া বেগম ১১টি পাতি হাঁস পালন করেন। প্রত্যেক দিন সব গুলোতে ডিম দেয়। আর এই ডিম বিক্রয় করে হাঁসের খাবার ক্রয় ও অভাবেব সংসারের কিছুটা ব্যায় ভার বহন করে থাকে।

একই গ্রামের ভ্যান চালক নজরুল ইসলামের স্ত্রী হালিমা খাতুন ৫টি পাতি হাঁস পালন করেন। সব গুলোই ডিম দেয়। এই ডিম দিয়ে তার পরিবারের পুষ্টির চাহিদা মিটায়েও অভাবেব সংসারের কিছুটা ব্যায় ভার বহন করে থাকে। মঙ্গলবার সকালে চিত্রা নদী পাড়ের সরকারী জমিতে অবৈধ ভাবে ধান চাষ কৃত ক্ষেতে বিষ প্রযোগ করলে হাঁসগুলি মারা যায়। ঘটনাটি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার পার-শ্রীরামপুর ও সিংদাহ গ্রামে।

এঘটনায় দুই গ্রামের ২৫ কৃষাণির প্রায় দেড় শতাধিক পাতি হাঁস মারা যায়। পার-শ্রীরামপুর গ্রামের সাবেক মেম্বর আমজাদ হোসেন জানান, নদীর পাড়ে সরকারী জমিতে অবৈধ ভাবে ধান চাষে বিষ প্রযোগের কারণেই হাঁসগুলি মারা গেছে। এতে ২৫ কৃষাণির প্রায় দেড় শতাধীক পাতি হাঁস মারা যায়। এবং আরো অনেক হাঁস নিখোঁজ রয়েছে।

ঘটনার পর দুই গ্রামের কৃষাণিরা মরা হাঁস নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও)কাছে উপস্থিত হয়ে মৌখিক ভাবে অভিযোগ করেন। যারপ্রেক্ষিতে ঐদিন বিকালে ইউএনও মহদয় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া জেরিন জানান, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলি ইউএনও বরাবর আবেদন করলে আমরা যথাযথ সহযোগিতা করবো। এছাড়া নদীতে ৩টি অবৈধ বাঁধ অপসারণ করেন বলে জানান তিনি।

Comment using Facebook