কলারোয়ায় বীর নিবাস নির্মাণে অনিয়ম

0
65

রেজওয়ান উল্লাহ, কলারোয়া (সাতক্ষীরা)

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় বীর নিবাস নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। প্রতিবাদ করাতে ঠিকাদার কর্তৃক এক বীর মুক্তিযোদ্ধা লাঞ্চিত হয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে, কলারোয়া উপজেলার ৫নং কেড়াগাছি ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামে। এঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াদ আলী জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার কর্তৃক অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন র্নিমাণ প্রকল্পে কলারোয়া উপজেলায় ১২জন বীর মুক্তিযোদ্ধার বীর নিবাস নির্মানের জন্য ঘর বরাদ্দ পান। এর মধ্যে তিনি তালিকায় ১নম্বরে রয়েছেন। তার ঘর নির্মানের শুরুতেই অনিয়ম করে ওই কাজের সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার জিয়া। ৩ নম্বর ইট দিয়ে ঘরের গাথুনি শুরু করলে তিনি প্রতিবাদ করেন।

এসময় ঠিকাদার জিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াদ আলীকে অকথ্য ভাষায় কথা বলে লাঞ্চিত করে। তিনি আরো বলেন, ঠিকাদার জিয়া, মিস্ত্রী আলতাফ ঘরের মধ্যে মাটি ফেলে ভরাট করতে বলেন। এই কাজ না করলে তারা ঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেবে বলে হুমকি প্রদান করে। এসব অনিয়মের বিষয় নিয়ে বুধবার তিনি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু ও স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ জানালে বৃহস্পতিবার ভোরে তার বাড়ীতে ট্রলি পাঠিয়ে ৩ নম্বর ইট গুলি ঠিকাদার জিয়া তুলে নিয়ে যায়।

এসময় সে বলে যায় যে, সব মুক্তিযোদ্ধা ঘর নির্মাণ হয়ে যাওয়ার পরে জিয়াদ আলীর ঘর নির্মাণ হবে। বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াদ আলী আরো বলেন, ১৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকা ব্যায়ে তার ঘর নির্মাণ হচ্ছে। ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম ও পাশ্ববর্তী ওয়ার্ডের বীর মুক্তিযোদ্ধা অজেদ আলী বলেন, তারা জিয়াদ আলীর কথা শুনে ঘটনা স্থানে গিয়ে ২/৩ নম্বর ইট দেখতে পান। তারা এই অনিয়মের প্রতিবাদ জানান।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুবায়ের হোসেন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বরাদ্দকৃত বীর নিবাস নির্মাণে কোন অনিয়ম হতে পারে না। অভিযোগ পেলে তাৎক্ষনিক ভাবে তদন্ত করে সত্যতা পেলে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ও এই কাজের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comment using Facebook