মনিরামপুরে ধান ক্ষেত থেকে বিধবার মরদেহ উদ্ধার

0
75

স্টাফ রিপোর্টার

যশোরের মনিরামপুরে পিতার গ্রামের এলাকার ধান ক্ষেত থেকে বুধবার সকালে পুলিশ জাহানারা বেগম(৪৫) নামে এক বিধবার মরদেহ উদ্ধার করেছে।

নিহত জাহানারা বেগম পৌরশহরের জয়নগর এলাকার মৃত লুৎফর রহমান বিশ্বাসের স্ত্রী। জাহানারা বেগমের মৃত্যু সম্পর্কে একমাত্র মেয়েসহ স্বজনদের দাবি তাকে পরিকল্পিত ভাবে অপহরনের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হতে পারে। পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেছে।

এলাকাবাসি জানায়, জাহানারা বেগমের দুই ছেলে বিয়ে করে অন্যত্র বসবাস করেন। একমাত্র মেয়েকেও বিয়ে দিয়েছেন। এরপর থেকে তিনি স্বামীর ভিটায় একা বসবাস করে আসছিলেন। বুধবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে জাহানারা বেগমের পিতার বাড়ি উপজেলার শ্যামকুড় ইউনিয়নের আগরহাটি গ্রামের পাশ্ববর্তি গ্রাম জামলার মাঠে ধানক্ষেতে তার মরদেহ পাওয়া যায়। সকাল ১১ টার দিকে সেখান থেকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করেন। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম, সহকারি পুলিশ সুপার(মনিরামপুর সার্কেল) আশেক সুজা মামুন, ওসি(সার্বিক) নূর ই আলম সিদ্দিকীসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। জাহানারার মৃত্যু সম্পর্কে পুলিশ সুনিদ্দিষ্ট কোন ক্লু এখনও উদঘাটন করতে পারেনি।

তবে নিহতের একমাত্র মেয়ে শাহিনা খাতুনসহ স্বজনদের দাবি পরিকল্পিতভাবে অপহরনের পর শ^াসরোধে তাকে হত্যা করা হতে পারে। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে সুন্দলপুর বাজারের কয়েকজন ব্যক্তি জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর একটি মোটরসাইকেল থেকে জাহানারাকে তারা বাজারে নামতে দেখেন। জাহানারা বেগমের মা রাশিদা বেগম জানান, মাস দুয়েক আগে জাহানারা তাদের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল।

মনিরামপুর থানার ওসি (তদন্ত) মাহাবুবুর রহমান জানান, জাহানারার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন লক্ষ করা যায়নি। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে তার মৃত্যু রহস্য উদঘাটিত হবে। ওসি (সার্বিক) নূর ই আলম সিদ্দিকী জানান, এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কেউ থানায় মামলা করেননি।

Comment using Facebook