কেশবপুরে রাস্তা নিয়ে বিরোধে মহিলাকে মারপিট: মামলা

0
51

কেশবপুর (যশোর) সংবাদদাতা

কেশবপুরে বাড়ির চলাচলের রাস্তা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা এক মহিলাকে মারপিট করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এঘটনায় আলমগীর হোসন মোড়লের স্ত্রী নাসিমা বেগম বাদি হয়ে গত বুধবার ১৬ ফেব্রুয়ারী বিজ্ঞ আমলী আদালত, কেশবপুর অঞ্চল,যশোর ৪ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছে। যার মামলার নং ৭৯/২২। তাং ১৬/২/২২। বিজ্ঞ আমলী আদালত, কেশবপুর অঞ্চল, যশোর বিচারক মাহাদী হাসান মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিল করা জন্য কেশবপুর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে। আসামীরা হলেন, শাহিদা খাতুন, দৌলত মোড়ল, মাসুরা খাতুন, হাবিব।

আদালতের মামলার জানা গেছে উপজেলার বুড়িহাটি গ্রামের আলমগীর হোসেন মোড়লের স্ত্রী নাসিমা বেগমের সাথে একই গ্রামের মৃত আব্দুর রহিম মোড়লের মেয়ে শাহিদা খাতুন, ছেলে দৌলত মোড়ল, দৌলত মোড়লের স্ত্রী মাসুরা খাতুন, ছেলে হাবিবের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির থেকে বের হওয়ার রাস্তা নিয়ে গোলমাল ও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে পূর্বশক্রতা সহ নানাবিধ অত্যাচার চলে আসছে। এইর জের ধরে গত সোমবার ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ১১ টায় নাসিমা বেগম ও তার স্বামীকে উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে আসামীরা।

এ সময় নাসিমা বেগম প্রতিবাদ করলে আসামী শাহিদা খাতুন, দৌলত মোড়ল, তার স্ত্রী মাসুরা খাতুন ও ছেলে হাবিবের ভয়ে নাসিমা বেগম তার বসত ঘরের মধ্যে আশ্রয় নেয়। এরপর আসামীরা মিলে নাসিমা বেগমকে বসত ঘর থেকে বের করে উঠানে এনে এলোপাতাড়ি কিল, চড়, ঘুষি মেরে চুলের মুঠি ধরে পরনের কাপড় চোপড় বিব¯্র করে। আসামীরা মিলে নাসিমা বেগমকে বাঁশের লাঠি ও লোহার লাঠি দিয়ে মারপিট করে গুরুতর আহত করে। আহত নাসিমা বেগমকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে কেশবপুর হাসপাতালে ভর্তি করে দিয়ে ছিলেন।

Comment using Facebook