বসন্ত বাতাসে গাছে গাছে দোল খাচ্ছে সজনে ফুল

0
142

মিহির, শিল্পাঞ্চল (খুলনা)

খুলনার শিল্পাঞ্চল ও তার আশেপাশে এলাকায় গাছে গাছে দোল খাচ্ছে বসন্তের আগমনি বার্তা সজনে ডাটার ফুল। বাঙালির প্রিয় ও দামি তরকারি সজনে যার ইংরেজি নাম ড্রামস্টিক। উৎপত্তিস্থল ভারত উপমহাদেশে হলেও শীত প্রধান এলাকা ছাড়া প্রায় সারা পৃথিবীতে এই সজনে পাওয়া যায়।

শীতের বিদায় ও বসন্তের আগমনী মুহূর্তে আসা সজনে গাছের ফুল যেন গাছ জুড়ে সাদা চাদরে জড়িয়ে আছে। আছে সজনে ফুলের মৌ মৌ গন্ধ আর মৌমাছির গুনজন। বসন্তের শিশির ভেজা সকালে সজনে গাছের নিচে বিছিয়ে থাকা ঝরা ফুল যেন বসন্তের সকালের শোভাকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে।

রাস্তার পাশে সারিবদ্ধ ভাবে, বাড়ির আঙিনায় ও পুকুর পাড়ে সাদা ফুলে ছেয়ে থাকা গাছ গুলো বসন্তকে আরও মনোমুগ্ধ করে তুলেছে। সাধারণত শীতের শেষ ভাগে ও বসন্তের শুরুতে ও ফাল্গুন মাস জুড়ে সজনে গাছে ফুল আসে যা এপ্রিল থেকে আগস্ট পর্যন্ত সজনে খাওয়ার উপযোগি হয় এবং সজনে বাজারে পাওয়া যায়।

প্রথমদিকে এর দাম প্রতি কেজি ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা হয়ে থাকে যা পরে ধাপে ধাপে কমে ৫০ থেকে ১০০ টাকায় নেমে আসে। তবে স্থানভেদে দাম কম বেশি হয়ে থাকে। সজনে ডাটা বাঙালির একটি প্রিয় খাবারই নয় এটা মানব দেহের নানা রোগের উপকার করে। ভারতের আয়ুর্বেদ শাস্ত্র মতে সজনে পাতা, ফুল, সজনে ও গাছ প্রায় ৩০০ রকমের রোগ থেকে মানুষকে রক্ষা করতে পারে। আধুনিক বিজ্ঞান এই ধারণাকে সমর্থন করে।

শুধু সজনে নয় এর পাতা সবজি হিসেবে ব্যবহার করা হয়, এমনকি এর ফুল, ফল ও বাকল, আঠা ঔষধী গুণে ভরপুর। যে কোন ধরনের ব্যথা, জ্বর, সর্দি-কাশি, যকৃত, পিলহা, কৃমি, বহুমূত্র, শ্বাসকষ্ট, মাইগ্রেন সহ প্রায় ২০ ধরনের রোগের কার্যকর ভূমিকা রাখে বলে ডাক্তারি শাস্ত্রের বলা হয়েছে।

Comment using Facebook