দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে শেখ হাসিনার সরকার কাজ করে যাচ্ছেন: শাহীন চাকলাদার

0
170

স্টাফ রিপোর্টার, কেশবপুর

যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে সংসদ সদস্য ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার বলেছেন, ক্যান্সার, লিভার সিরোসিস, স্ট্রোকে প্যারালাইজড, থ্যালাসোমিয়া ও জন্মগত হৃদরোগিদের চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করে দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মান উন্নয়ন ও স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, গ্রামাঞ্চলে বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী, মাতৃকালীন ভাতাসহ পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে বিভিন্ন ভাতাসহ নানা সুযোগ-সুবিধার আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। গৃহ ও ভূমিহীন অসহায় দরিদ্র মানুষকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সরকারের নিজ অর্থায়নে খাসভূমিতে বাড়িঘর নির্মাণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। দুপুরে কেশবপুর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের আয়োজনে ক্যান্সার, লিভার সিরোসিস, স্টোকে প্যারালাইজড, থ্যালাসোমিয়া ও জন্মগত হৃদরোগিদের চিকিৎসার জন্য ১৮ জনকে ৯ লাখ টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদান কর্মসূচীর আওতায় চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেনের সভাপতিত্বে ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসার আলমগীর হোসেনের পরিচালনায় উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জিয়াউল হাসান হ্যাপী, অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সরদার ওলিয়ার রহমান, যশোর জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মশিউর রহমান সাগর, রেজাউল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মফিজুর রহমান মফিজ, থানার অফিসার ইনচার্জ বোরহান উদ্দীন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার আলমগীর হোসেন, উপজেলা প্রকৌশলী সাইফুল ইসলাম মোল্যা, উপজেলা শিক্ষা অফিসার রবিউল ইসলাম, উপজেলা কৃষি অফিসার ঋতুরাজ সরকার, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার সজীব সাহা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার রিজিবুল ইসলাম, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার পুলোক কুমার শিকদার প্রমুখ। অপরদিকে- কেশবপুর উপজেলায় কর্মরত সরকারী কর্মকর্তাদের সাথে যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে সংসদ সদস্য ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার মতবিনিময় করেছেন।

Comment using Facebook