মণিরামপুরের নেহালপুর-হাজিরহাট রাস্তার গাছ বিক্রির হিড়িক : প্রশাসন নিরব

0
22


আক্তারুজ্জামান
মণিরামপুরের নেহালপুর-হাজিরহাট রাস্তার গাছ বিক্রির হিড়িক চলছে। প্রশাসন জেনেও না জানার ভান করছে। একদিকে রাস্তা সম্প্রসারণ করার নামে ঠিকাদারের লোকজন ভেকু মেশিন দিয়ে রাস্তার পাশের গাছ ভেঙ্গে দিচ্ছে, অন্যদিকে এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে স্থানীয়রা রাস্তার পাশের গাছ নিজের গাছ বলে বিক্রি করে দিচ্ছে। আবার কেউ কেউ কেটে নিয়ে নিজেদের ব্যবহারের অসবাবপত্র তৈরি করছে। গতকাল বুধবার সরেজমিনে গিয়ে ওই রাস্তার আলীপুর নামক স্থানে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তার পাশের গাছ স্থানীয়রা কেটে নিচ্ছে, এসময় ভেকু মেশিন দিয়ে গাছ ভাঙতেও দেখা যায়। এসময় জানাযায়, আলীপুর গ্রামের সঞ্জীবন হালদার রাস্তার পাশের অনেক গাছ বিক্রি করে দিয়েছে নেহালপুর বাজারের রাজু ব্যাপারীর কাছে। সঞ্জীবন হালদার দাবি করেন এগাছগুলো তার লাগানো। যেকারণে তিনি বিক্রি করে দিয়েছেন। গত বুধবার মণিরামপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোঃ আলী হাসান বলেছিলেন ওই রাস্তা গাছ জেলা প্রশাসনের। এব্যাপারে জেলা পরিষদের সদস্য গৌতম চক্রবর্র্তী বলেন ওই রাস্তার গাছ জেলা পরিষদের না। ওই গাছ উপজেলা ভূমি অফিসের বিষয়টি আপনি ভূমি অফিসকে জানান। এব্যাপারে গতকাল বৃহস্পতিবার আবারও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মোঃ আলী হাসান কে আবারও বিষয়টি জানানো হলে তিনি বলেন কেউ যদি আমাদের কাছে অভিযোগ না করে তাহলে আমরা বিষয়টি দেখবো না। স্থানীয় কাউকে দিয়ে অভিযোগ করানোর ব্যবস্থা করেন। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কবীর হোসেন বলেন, রাস্তার গাছ তো সরকারের ও গাছ তো কোন সাধারণ মানুষের না। রাস্তা সম্প্রসারণ করার স্বার্থে সেগুলো কেটে বা ভেঙ্গে দেওয়া হতে পারে।

Comment using Facebook