অভয়নগরের সাবরেজিষ্ট্রারসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে দুদকে অভিযোগ

0
32


স্টাফ রিপোর্টার
ভারতে বসবাসকারী নারীর স্বাক্ষর জাল করে দুর্নীতির মাধ্যমে জমির আমমোক্তারনামা ও দলিল করে নেওয়ার অভিযোগে অভয়নগরের সাবরেজিস্ট্রার রিপন মুন্সিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) যশোরে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। সোমবার অভয়নগরের মহাকাল গ্রামের মৃত ফকির আহম্মেদ সরদারের ছেলে আমজাদ হোসেন এ অভিযোগে দিয়েছেন। অভিযোগে বিবাদী করা হয়েছে, দলিল লেখক শাহিন হোসেন, রাজঘাটের মৃত দবির উদ্দিনের ছেলে হাফিজুর রহমান, গোয়াখোলা গ্রামের মৃত শামসুজ্জামানের ছেলে আবু দাউদ, মোয়াল্লেমতলা গ্রামের শেখ ইসহাকের ছেলে আরিফুল ইসলাম, যশোর সদর উপজেলার ঘুনী গ্রামের শামসের মোল্লার ছেলে হাবিবুর রহমান, শহরের বিমানবন্দর সড়কের শরিতুল্লা দপ্তরির ছেলে সাহেল আহম্মেদ ও চাঁচড়া রায়পাড়ার নুরুল ইসলামের ছেলে মফিজুল ইসলাম। অভিযোগ থেকে জানা গেছে, মহাকাল গ্রামের আমজাদ হোসেন ও তার তিন ভাই মৃত মোবারেক মোড়লের স্ত্রী রহিমননেছা ওরফে রহিমা খাতুন, সালেহ আহম্মদ দপ্তরির স্ত্রী মমতাজ বেগম ও আব্দুল্লাহ আল মামুনের স্ত্রী মালেকা খাতুনের কাছ থেকে বেশ কিছু জমি রেজিস্ট্রি দলিল করে নেন। এরমধ্যে ২০১৬ সালের ১৪ ডিসেম্বর আমজাদ হোসেন মহাকাল মৌজার ১৬৮৫ দাগের ২৮ শতক, আব্দুল করিম সরদার ১৭২৭ দাগের ৬৯ শতক, ওয়াজ করিম সরদার ১২৮৪ দাগের ৬৩ শতক ও ফজলুর রহমান আমডাঙ্গা মৌজার ১৩৯২ দাগের ৫৪ শতক জমির দলিল সম্পন্ন করে ভোগদখল করে আসছেন। এরমধ্যে মফিজুল ইসলাম ও দলিল লেখক শাহিন ষড়যন্ত্র করে আমডাঙ্গা মৌজার কয়েকটি দাগের মোট ১৫৬ শতক ধানি জমি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের চাকদা থানার সাটুরাহাটখোলায় বসবাসরত সালেহ আহম্মেদ দপ্তরির (সাকো) স্ত্রী মমতাজ বেগম ওরফে খাতুনের স্বাক্ষর জাল করে হাফিজুর রহমান অন্যদের সহযোগিতায় সাবরেজিস্ট্রার রিপন মুন্সিকে অনৈতিক সুবিধা দিয়ে চলতি বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর তিনটি আমমোক্তারনামা তৈরি করে নেন। এরপর আবু দাউদ আসামিদের আমডাঙ্গা মৌজার ১৬৮ শতক, মহাকাল মৌজার ১৩৯ দশমিক ৫০ শতক জমির জাল মালিকানা সৃষ্টি করে। এছাড়া, আবু দাউদ গত ১২ অক্টোবর জালিয়াতি করে মহাকাল মৌজার ৫০ শতক জমি ও আমডাঙ্গা মৌজার আরও ১৫৬ শতক জমি দলিল করে নেয়। এছাড়া, আবু দাউদ একইদিনে আমডাঙ্গা ও মহাকাল মৌজার আরও ১০১ দশমিক ৫০ শতক জমি জালিয়াতি করে দলিল করে নেয়। বিষয়টি জানতে পেরে জমির ভোগদখলকারীদের পক্ষে আমজাদ হোসেন দুর্নীতি দমন কমিশন যশোর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে এ অভিযোগ দিয়েছেন।

Comment using Facebook