সাতক্ষীরায় উপসর্গে ৩ জনের মৃত্যু : করোনা শনাক্তের হার প্রায় ৫৩ শতাংশ

0
85

হাফিজুর রহমান, সাতক্ষীরা

গত ২৪ ঘন্টায় সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতালে করোনা উপসর্গে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে সাতক্ষীরা জেলায় মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) পর্যন্ত কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে ৮৮ জন এবং করোনা উপসর্গ নিয়ে ৭৮১ জন মারা গেছেন। গত ২৪ ঘন্টায় সাতক্ষীরায় নতুন করে আরও ৬৫ জন করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এ সময় র‌্যাপিড এন্টিজেন কীট ও সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতালের আরটি পিসিআর ল্যাবে মোট ১২৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। শনাক্তের হার ৫২ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ (সামেক) হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টসহ করোনার নানা উপসর্গ নিয়ে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট ৫১ জন রোগী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এর মধ্যে ৫ জন করোনা পজেটিভ ও বাকি ৪৬ জন সাসপেক্টেড। নিবিড় পরিচর্যা ইউনিটে (আইসিইউ) ৮ জন রোগী ভর্তি আছেন। সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের সিভিল সার্জন ডাঃ হুসাইন সাফায়াত জানান, গত ২৪ ঘন্টায় সাতক্ষীরা সামেক হাসপাতালের আরটি পিসিআর ল্যাবে ৯২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৫০ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

এছাড়া সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে র‌্যাপিড এন্টিজেন কীটে ৩১টি নমুনা পরীক্ষা করে আরো ১৫ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৫২ দশমিক ৮৫ শতাংশ। তিনি আরও বলেন, সাতক্ষীরা জেলায় ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৭ হাজার ১৬ জন।

জেলায় মোট ৬ হাজার ৮১৫ জন সুস্থ’্য হয়েছেন। বর্তমানে জেলায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১১৩ জন। এদের মধ্যে ৫ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি এবং ১০৮ জন হোম আইসোলেশনে আছেন।

সাতক্ষীরা জেলায় ১লা জানুয়ারি থেকে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত করোনো ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৮৮ জন এবং করোনা উপসর্গে আরো ৭৮১ জন মারা গেছেন। জেলায় গড় সংক্রমণের হার ২০ দশমিক ০৮ শতাংশ। সিভিল সার্জন আরও জানান, গত ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত জেলায় এস্ট্রোজেনেকা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ ১ লক্ষ ৫৬ হাজার ৬১৭ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ ৮৫ হাজার ৬০৫ জন গ্রহণ করেছেন।

সিনোফার্মা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ ৮ লক্ষ ৯৯ হাজার ৩৩৮ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ ৭ লক্ষ ৯০ হাজার ৪৪৬ জন গ্রহণ করেছেন। ফাইজার ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ ২ লক্ষ ২১ হাজার ৪৩০ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ ১৯ হাজার ৮৬০ জন গ্রহণ করেছেন। সিনোভ্যাক ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ ১ লক্ষ ১৫ হাজার ৮১১ জন গ্রহণ করেছেন।

এস্ট্রোজেনেকা ভ্যাকসিনের বুষ্টার ডোজ ১৬ হাজার ৪৬ জন এবং ফাইজার ভ্যাকসিনের বুষ্টার ডোজ ৯১ জন গ্রহণ করেছেন। তিনি আরও জানান, সাতক্ষীরা জেলায় এ পর্যন্ত ১৩ লক্ষ ৯৩ হাজার ১৯৬ জনকে প্রথম ডোজ, ৮ লক্ষ ৯৫ হাজার ৯১১ জনকে দ্বিতীয় ডোজ এবং ১৬ হাজার ১৩৭ জনকে তৃতীয় ডোজ ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়েছে।

Comment using Facebook