আজ সোমবার ১৩ই জুলাই, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ রাত ৪:৫৭

add

যশোর বিআরটিএ অফিসে দালাল চক্রের তৎপরতা বেড়েছে

সাকিব জিকো
প্রকাশিত: নভেম্বর ১৮, ২০১৯ সময় : ২৩:২৯:৪৮

সড়ক আইন কার্যকরের ঘোষণায় যশোর বিআরটিএ অফিসে দালাল চক্রের তৎপরতা বেড়েছে। ড্রাইভিং ও গাড়ির লাইসেন্স করার ভীড় বাড়ার সুযোগ নিয়ে এই চক্রটি অফিসে যেন ঘুষের হাট বসিয়েছে। তারা নানা কৌশলে প্রতি ফাইলে দুই থেকে তিন হাজার টাকা বেশি হাতিয়ে নিচ্ছে।

যশোর জেলা তথ্য বাতায়নে বিআরটিএ অফিসের কর্মরত অফিসার ও কর্মচারীর নামের তালিকায় রয়েছেন সহকারী পরিচালক (ইঞ্জি:) কাজী মো. মোরছালীন, মোটরযান পরিদর্শক হুমায়ুন কবীর, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. আব্দুস সোবহান গাজী, উচ্চমান সহকারী কম্পিউটার অপারেটর মো. নজরুল ইসলাম, সহকারী মোটরযান পরিদর্শক মো. আব্দুল মতিন, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক ফাহাদ আহমেদ, রেকর্ড কিপার মো. হারুন অর রশিদ ও অফিস সহায়ক মুন্সি আব্দুল আলীম।

 

 

এই ৮ জনের নাম থাকলেও কাজ করেন কমপক্ষে ১৫জন। বাকিদের নিয়োগ আছে কি না নিশ্চিত হওয়া যায়নি। আব্দুল আলীম নামে এক ভুক্তভোগী জানান, অফিসের সহায়ক মুন্সি আব্দুল আলীমের কাজ করে দেন দুই দালাল। বিনা নিয়োগে কাজ করার ব্যাপারে তারা দুইজনেই জানান, মুন্সি সাহেব একা কাজ করে পারেন না, তাই তাকে সহযোগিতা করেন। বিআরটিএ অফিসে সিসি ক্যামেরা আছে। অফিসে কারা আসছে এবং যাচ্ছে তারও রেকর্ড রয়েছে।

 

ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন, প্রতিদিন যারা ওই অফিসে যাতায়াত করেন এবং কাগজপত্রে হাত দেন তারা কারা সেটা বের করা খুব একটা কঠিন না। বিআরটিএ সহকারী পরিচালক পরিকল্পিত ভাবে এসব দালালদের অলিখিত ভাবে নিয়োগ দিয়ে রেখেছেন। সরকার সড়ক আইন কার্যকরের ঘোষণা দিলে যশোর ও নড়াইলের গাড়ির চালকরা লাইসেন্স পাওয়ার জন্য প্রতিদিন হাজির হচ্ছে বিআরটিএ অফিসে। সেখানে কাগজপত্র জমা দিতে গেলে অফিসের কেউ বিন্দুমাত্র সহযোগিতা করছেন না।

 

লোহাগড়ার কামাল হোসেন বলেন, মোটরসাইকেলের ড্রাইভিং লাইসেন্স করার জন্য ফরম পূরণ করে কোথাও ভুল আছে কি না তা জানার জন্য অফিসে হেল্প ডেস্কে গিয়েছিলাম। কিন্তু দায়িত্বরত ব্যক্তি সহযোগিতা না করে খারাপ ব্যবহার করে বলেছেন, বাইরে অনেক লোক আছে তাদেরকে দেখান। এর পরপরই এক দালাল এসে আমার কাছ থেকে কাগজপত্র নিয়ে নিচের তলায় যেতে বললেন। সেখানে যাওয়ার পর তিনি আরো দুটি কাগজ নিয়ে আসতে বললেন।

 

এরপর ১০ হাজার ৩০০ টাকা দাবি করে বললেন, কোথাও যেতে হবে না। সবই আমি করে দেবো। পরীক্ষায় উপস্থিত হলে চলবে। পাস করার প্রয়োজন নেই। তার কথামত সব টাকা দেয়ার একদিন পর লার্নারের কাগজ দিয়েছে। এ জন্য খরচ লাগার কথা ২ হাজার ৭০০ টাকা। কিন্তু নিয়েছে ১০ হাজার ৩০০ টাকা।

 

 

বিআরটিএ অফিসে প্রায় কাজ করেন মকবুল হোসেন। তিনি নিজেও মাঝে মধ্যে দুই একটি ফাইল জমা দেন। সহকারী পরিচালকের সাথে মোটামুটি সম্পর্ক ভালো দাবি করে তিনি মাঝে মধ্যে ফাইল জমা দেন। ফাইল প্রতি ৩ হাজার টাকা করে থাকে তার।

 

মকবুল হোসেন জানান, বিআরটিএ অফিসে কমপক্ষে ৩০জন দালাল আছে। যশোরের বাগআঁচড়া, বাঘারপাড়া, নড়াইলের কালিয়া এবং লোহাগড়ায় রয়েছে দালালদের অফিস। উল্লেখ করা হয়েছে, মোটরসাইকেলের ডিলার অফিসে নিয়োগকৃত কর্মরতরা এসব অফিস করেছেন। যারা বিআরটিএ অফিসের দালাল হিসেবে চিহ্নিত।

 

 

বাগআঁচড়ায় সুমন জানান, তাদের বাগআঁচড়ায় আঞ্চলিক বিআরটিএ অফিস আছে। সেখানে ফরম ও টাকা দিলে পরীক্ষার দিন শুধুমাত্র হাজিরা দিলে পাস করা যায় বলে তিনি দাবি করেন। নতুন আইন পাস হওয়ার পর গত বুধবার বিআরটিএ অফিসে হিরা নামে একজন ৫০টি ফাইল জমা দিয়েছেন। তিনি সাড়ে ৮ হাজার থেকে ১১ হাজার টাকা পর্যন্ত নিচ্ছেন ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য।

 

গাড়ির লাইসেন্স করতে সরকারি খরচ ১০০ সিসি’র মধ্যে ১৯ হাজার ৬৬৩ টাকা ও ১০০ থেকে ১৬০ সিসি পর্যন্ত ২১ হাজার ২৭৩ টাকা। ড্রাইভিং লাইসেন্স অপেশাদার ২হাজার ৫৪২ টাকা (১০ বছর মেয়াদী)। নামপত্তন ১০০ সিসি এনালক ৫ হাজার ৩১১ টাকা। ডিজিটাল ৩ হাজার ৮১ টাকা। ১০০ সিসির ওপরে এনালক ৫হাজার ৪৮ টাকা এবং ডিজিটাল ৩হাজার ৫৮৮ টাকা।

 

গোলাম আলী হায়দার নামে এক ভুক্তভোগী জানান, ড্রাইভিংয়ের জন্য প্রায় ১১ হাজার টাকা এবং গাড়ির জন্য সরকারির ফি চেয়ে ৩ হাজার টাকা বেশি নিচ্ছে দালালরা। আর না দিলে মাসের পর মাস ঘুরতে হবে। সরাসরি ফাইল জমা দিতে গেলে ফাইল প্রতি মুন্সি আব্দুল আলীমকে দিতে হয় ২০০ টাকা। ক্ষেত্র বিশেষ ১০০ টাকা দিলেও হয়। আর টাকা না দিলে লার্নারের পরীক্ষার তারিখ পড়বে কমপক্ষে ৫ মাস পর। এছাড়া ফাইল প্রতি টাকা না দিলে ফিংগারিং, পরীক্ষার তারিখ পড়ে ৫ মাস থেকে ৬ মাস পর।

 

আর টাকা দিলে এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে লার্নারসহ পরীক্ষা এবং ফিংগারিং করে মূল লাইসেন্স পাওয়া যাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে অনেকের। বিআরটিএ অফিসে যাতায়াতকারী আবিদুর রহমান জানান, পাবলিকের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা নিয়ে বিআরটিএ অফিসের কর্মকর্তাদের টাকা দিতে হয়। ফাইল জমা দেয়া, পরীক্ষার তারিখ বসানো, ফিংগারিং, পরীক্ষা এবং সর্বশেষ সরকারি পরিচালকের অনুমোদনের জন্য টাকা দিতে হয়। টাকা না দিলে এসব ক্ষেত্র থেকে ফাইল নড়ে না। পড়ে থাকে মাসের পর মাস।

 

 

যশোর বিআরটিএ সহকারী পরিচালক কাজী মোরছালীন জানান, জেলা তথ্য বাতায়নে আপডেট তথ্য নেই। স্থানীয় ভাবে নিয়োগ দেয়াসহ ১১জন কাজ করেন। বিআরটিএ অফিসে কোন দালাল নেই। যদি কারো অভিযোগ থাকে তাহলে তথ্যপ্রমাণ নিয়ে আসতে হবে। অফিসে বিআরটিএ’র লোকজন ছাড়া অন্য কারো কাজ করার সুযোগ নেই।

 

 

বিআরটিএ অফিসে যদি দালালদের অপতৎপরতা থাকে তাহলে তাদেরকে নির্মুল করার জন্য যশোর জেলা প্রশাসন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে যশোরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল হাসান জানিয়েছেন।

খুলনা বিভাগে বাস বন্ধ : আকষ্মিক কর্মসূচিতে ভোগান্তি চরমে
হরিণাকুন্ডুতে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে সন্ত্রাসী নিহত : অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার
করোনা এড়াতে চশমা পরিষ্কার করবেন যেভাবে
জাদুশিল্পী খান শওকতের উদ্যোগে অনলাইন জাদু প্রতিযোগিতার আয়োজন
ফের বিয়ে করলেন মোসাদ্দেক
যশোর-০৬ আসনের এমপি হতে যাচ্ছেন শাহিন চাকলাদার
নিন্মআয়ের শ্রমজীবীদের মাঝে সিটি মেয়রের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
পরীক্ষা ছাড়াই করোনার ভুয়া রিপোর্ট দেয়া ডা. সাবরিনা গ্রেফতার
খুলনায় করোনায় তিনজনের মৃত্যু : নতুন শনাক্ত ৮৭
এখনো অধরা ‘মহাপ্রতারক’ সাহেদ করিম
নেপালে বন্যা- ভূমিধ্বসে নিহত ৪০ : বহু নিখোঁজ
কোভিড-১৯: ব্রাজিলে মৃত্যুর সংখ্যা ৭১ হাজার ছাড়াল
সংক্রমণের নতুন রেকর্ড ভারতে : একদিনেই আক্রান্ত ২৮৬৩৭
সাহেদকে আত্মসমর্পণ করতে হবে; অন্যথায় গ্রেফতার-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
বিষোদগার ছাড়া এ সংকটে কী করেছে বিএনপি -প্রশ্ন কাদেরের
স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত-মির্জা ফখরুল
লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত
যশোরের সিভিল সার্জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত
ঢামেকের করোনা ইউনিটে ২ দিনে আরও ২২ জনের মৃত্যু
বদলি কোনো শাস্তি নয়; অনিয়মে জড়িত থাকলে বরখাস্ত -স্থানীয় সরকার মন্ত্রী
ঈদুল আজহার নামাজও মসজিদে : করা যাবেনা কোলাকুলি
সাতক্ষীরায় চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মী ও ব্যাংক কর্মকর্তাসহ আরও ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত
‘গোয়াল ঘর আপনার গরু আমাদের’ লিখে গরু চুরি : গণপিটুনিতে নিহত তিন : আটক এক
যশোরের ৬টির মধ্যে ৪টিতে আসছেন বর্তমান এমপি
অভিযোগ বাক্স ঝুঁলিয়েছেন এমপি তন্ময় : আতংকে মাদক সিন্ডিকেট
করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তির লক্ষে বিশেষ দোয়া ও লিফলেট বিতরণ করলেন- নওয়াপাড়ার গদ্দীনশীন পীর
সিপাই থেকে ওসি হয়ে শতকোটি টাকার পাহাড়! দুদকে অভিযোগ
কোথাও ঠাঁই নেই : কবরস্থানে মা- ছেলের বসবাস
অভয়নগরে চিকিৎসকের স্ত্রীর আত্মহত্যা
নওয়াপাড়ার ধোপাদী গ্রামে ৩ ইভটিজারকে গণধোলাই
যশোরের নতুন পুলিশ সুপার হলেন আশরাফ হোসেন
লোহাগড়া হাসপাতাল থেকে ডেঙ্গু রোগীকে বের করে দিয়েছেন সেবিকা কল্পনা ও সাধনা!
বাঘারপাড়ায় ধর্ষণের পর হত্যা করে জয়নবের লাশ ঘেরে ফেলেছে হাফেজ মুজিবুল
নিষিদ্ধ ঘোষিত এনার্জি ড্রিংক্স
যশোর শিক্ষাবোর্ডের সাড়ে ২৯ লাখ টাকা অপচয় বন্ধ করে দিলেন ড. মোল্লা আমীর হোসেন
রাজগঞ্জে কাজীকে ৬ মাসের জেল, মেয়ের পিতা চাচা ও স্বামীকে জরিমানা
কিস্তি দিতে না পারায় ধান ও পালিত শুকর নিয়ে গেছে সমিতির লোকেরা!
নওয়াপাড়ায় মাছ বাজারে ১ কেজি বাটখারার ওজন ৮শ’ গ্রাম :
ফুলতলায় র‌্যাবের অভিযানে অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ অভয়নগরের ৩ জন আটক
পথ দেখালো মডেল স্কুল :অনুসরণ করলো আল হেলাল: নওয়াপাড়ায় গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় আবারও সংঘর্ষ : নদী সাঁতরে প্রাণ রক্ষার চেষ্টা
অভয়নগরে এই প্রথম করোনা রোগী শণাক্ত
 চোখের জল ফেলবেন নওয়াপাড়া শংকরপাশা সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী সরোয়ার!

ই-পত্রিকা-কাগজে যেমন অনলাইনে তেমন

ePaper

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
প্রয়োজনীয় নাম্বার

অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা : ০১৭১৭৮১৩৩৪৪

নওয়াপাড়া রেলওয়ে মাষ্টার : ০১৭১৮৫৮১০৯৪

হাইওয়ে থানা ওসি : ০১৭৬৯৬৯০৪৫৯

UNO অভয়নগর : ০১৭৩৩০৭৪০৩৫

অভয়নগর থানা : ০১৭১৩ ৩৭৪১৬৭

ফায়ার সার্ভিস : ০১৭৩২ ৫৫০৪৬০

জাতীয় জরুরী সেবা : ৯৯৯

খুলনা বিভাগীয় এর আরও খবর

//