আজ মঙ্গলবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং রাত ২:৫৮

add

যশোরে লালদীঘি ভরাট করে বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণ কাজ চলছে

বিশেষ প্রতিনিধি, যশোর
প্রকাশিত: November 8, 2019 সময় : 23:26:54

আইন মানছেনা না পৌর কর্তৃপক্ষ

যশোর পৌর কর্তৃপক্ষ শহরের প্রাণকেন্দ্রের ঐতিহ্যবাহী লালদীঘি ভরাট করে ১০ তলাবিশিষ্ট শপিং কমপ্লেক্স নির্মাণ করছে। জলাশয় সংরক্ষণ আইনে বলা আছে, সরকার ঘোষিত কোন জলাশয় কোনভাবেই ভরাট করা যাবে না। কিন্তু এই আইনের তোয়াক্কা না করে খোদ পৌরসভার পক্ষ থেকে রাতের আধারে পুকুর ভরাটের কাজ চলছে। ইতিমধ্যে পাইপ লাগিয়ে রাতের বেলায় পুকুরের পানি সরিয়ে ফেলা হচ্ছে। গত কয়েক বছরে যশোর পৌর শহরের অন্তত ১০টি পুকুর ভরাট করে আবাসন ও বাণিজ্যিক স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছে।

যেনতেনভাবে পুকুর ভরাট হলেও প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা। যে কারণে যশোরে জলবায়ুর ব্যাপক পরিবর্তন ঘটেছে। গরমের সময় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ও শীতের সময় সর্বনিন্ম তাপমাত্রা যশোরে বিরাজ করছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, শহরের ঐহিত্যবাহী লালদীঘির পাড়ে ‘পৌর হেরিটেজ মার্কেট’ শিরোনামে ১০তলা বিশিষ্ট শপিং কমপ্লেক্সের ছবিসহ একটি সাইন বোর্ড লাগানো রয়েছে। সেখানে লেখা আছে, নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার। মার্কেট নির্মাণের জন্যে নির্মাণ কাজের পাশে স্কেভেটর ও পাইলিং করার জন্যে বিশাল যন্ত্র রাখা আছে।

বালু ফেলে ভরাট করা হয়েছে দীঘির ভিতরে অন্তত ২০ ফুটের মত। দুইটি সেচযন্ত্র বসিয়ে দীঘির পানি সেচে রাস্তার উপর দিয়ে বের করে দেওয়া হচ্ছে। এতে রাস্তাও নষ্ট হচ্ছে। নির্মাণ কাজের পাশের এক ব্যবসায়ী বলেন, ‘এক মাস ধরে মার্কেট নির্মাণের জন্যে পাইলিং এর কাজ চলছে। সপ্তাহ খানেক ধরে ট্রাকে করে বালু ফেলে পাড় ভরাটের কাজ চলছে। দুইটি স্যালোমেশিন বসিয়ে দীঘির পানি সেচে ফেলা হচ্ছে।’ লালদীঘি বাঁচাও আন্দোলন কমিটির সদস্য ও জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বলেন, ‘শহরবাসির সামনে পৌর কর্তৃপক্ষ যশোরের স্পন্দন ঐতিহ্যবাহী লালদীঘি ভরাট করে বহুতল মার্কেট নির্মাণ করছে অথচ আমরা কিছুই করতে পারছি না।

পৌরসভা যশোরের পরিবেশ ও মানুষের স্বস্থির কথা না ভেবে বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান নির্মাণে বেশি আগ্রহী। এতে শহরের পরিবেশ বিপর্যয়ের আশংকা দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে লালদীঘির চার ভাগের এক ভাগ ভরাট করা হয়েছে। জলাধর সংরক্ষণ আইন পৌরসভা মানছে না। এ বিষয়ে পরিবেশ অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসনও নিরব ভূমিকায় রয়েছে। যা আমাদের জন্যে চরম হতাশার বিষয়।’

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, লালদীঘি আর যশোর পৌরসভার অভিন্ন ইতিহাস; অভিন্ন সত্তা। অন্তত ১৫০ বছর আগে যশোর শহরের গাড়িখানা সড়কের পাশে পৌরসভার উদ্যোগে এক একর ১২ শতাংশ জমির ওপর লালদীঘি খনন করা হয়। এলাকার শত শত মানুষ প্রতিদিন দীঘিতে গোসল, কাপড় কাচাসহ বিভিন্ন কাজে দীঘির পানি ব্যবহার করছেন। যশোরের পরিচয়চিহ্ন এই লালদীঘি।

যশোর ডিস্ট্রিক্ট গেজেটিয়ারে এই দীঘির বর্ণনা রয়েছে। নাগরিকদের পানি সরবরাহের জন্য এই পুকুর খনন করা হয়েছিল। কয়েক বছর আগেও এই লালদীঘি ভরাট করে পৌর কর্তৃপক্ষের মার্কেট নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়েছিলো। ওই সিদ্ধান্ত বাতিল ও দীঘিটি পুনঃখননের দাবিতে জনমত গঠনের লক্ষ্যে পৌরসভার বাসিন্দারা শহরের মোড়ে মোড়ে গণস্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযান চালান।

সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচিও হয়েছে একাধিকবার। যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন (এমএম) কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সোলজার রহমান বলেন, ‘শিল্প কারখানা ও মানুষের চাপে শহরের বাতাস দূষিত হয়। ওই দূষিত বাতাস শোধন করার জন্যে শহরের ভিতরে উন্মুক্ত জলাধার ও ফাঁকা জায়গা রাখতে হয়। ওই বাতাস জলাধার ও ফাঁকা জায়গার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়ার সময় শুদ্ধ হয়। যে বাতাস মানুষের স্বাস্থ্য ঠিক রাখে। এছাড়া যে শহরে পর্যাপ্ত জলাশয় থাকে সেই শহর শীতল থাকে। এতে পরিবেশও ঠিক থাকে। এজন্য যশোরের প্রাণকেন্দ্রে লালদীঘি উন্মক্ত ও পরিচ্ছন্ন রাখা অত্যন্ত জরুরি।’

যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার বলেন, ‘লালদীঘির পাড়ে ৩৫ শতক জমির উপরে ১০তলা বিশিষ্ট হেরিটেজ মার্কেট নির্মাণ করা হচ্ছে। ওই মার্কেটের পাইলিংয়ের জন্যে পাড়ের কিছু অংশে বালু ফেলা হয়েছে। নির্মাণ শেষে যন্ত্র নিয়ে ওই বালু আবার তুলে ফেলা হবে। লালদীঘি ভরাট করা হবে না। মার্কেট নির্মাণের প্রয়োজনে আপাতত বালু ফেলা হচ্ছে।’ শহরের ব্যক্তিমালিকানাধীন অধিকাংশ পুকুর ভরাট করে ফেলা হয়েছে। শহরের ছিন্নমূল মানুষের গোসলের জায়গা কমে যাচ্ছে। শহরের কোথাও আগুন লাগলে দমকল বাহিনী তা নেভানোর জন্য পানি খুঁজে পাবে না।

গত দুই বছরে শহরের অন্তত ১০টি পুকুর ভরাট হয়ে গেছে। যে কারণে বর্ষা মৌসুমে গোটা শহর জলাবদ্ধ হয়ে পড়ে। যশোর শহরের প্রাণের স্পন্দন ঐতিহ্যবাহি লালদিঘি। শহরের ইট, কাঠ, বালু, পাথরের ঝনঝনানি থেকে একটু শান্তির স্থল এই লালদীঘির পাড়। লালদিঘি ভরাটের ফলে যশোর হারাচ্ছে তার পুরানো ঐতিহ্য। এ বিষয়ে পরিবেশ অধিদপ্তর যশোরের উপ-পরিচালক নাজমুল হুদা বলেন, ‘জলাশয় সংরক্ষণ আইন-২০০০ অনুযায়ী সরকার স্বীকৃত কোন জলাশয় কোনভাবেই ভরাট করা যাবে না।

অনেকক্ষেত্রে এই আইন মানা হচ্ছে না। এই আইন জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করতে হয়। লালদীঘি ভরাটের বিষয়ে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ যশোরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক নূর-ই আলম জানান, লালদীঘি ভরাট করতে পারেনা পৌরসভা। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
প্রসুতি সেবায় বিশেষ অবদান : উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স
সারা বিশ্বেই নারীদের গল্প চাপা পড়ে যায়- শিক্ষামন্ত্রী
হরিণাকুন্ডুতে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে সন্ত্রাসী নিহত : অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার
যশোর বিআরটিএ অফিসে দালাল চক্রের তৎপরতা বেড়েছে
খুলনা বিভাগে বাস বন্ধ : আকষ্মিক কর্মসূচিতে ভোগান্তি চরমে
রাবিতে শিক্ষার্থীকে মারধর: ২ ছাত্রলীগ কর্মী বহিষ্কার
রাঙ্গামাটিতে জেএসএসের দুই পক্ষের গোলাগুলি : নিহত ৩
বাগেরহাটে জমি নিয়ে বিরোধ : গুলিতে বাবা-ছেলে আহত
বর্ণাঢ্য আয়োজনে নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদ্যাপিত
কুষ্টিয়ায় ধর্ষণের দায়ে একজনের যাবজ্জীবন
পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই : প্রসূতির মৃত্যু
বেনাপোল বন্দরে পন্য পরিবহন বন্ধ : ট্রাকের দীর্ঘ সারি
শেখ রাসেল গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে খুলনা টাইগার্সের জয়লাভ
চুকনগরে সড়ক নির্মানে দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ
দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশে সব থেকে সহনীয় বিনিয়োগ নীতি বিদ্যমান প্রধানমন্ত্রী
সানির গায়ে হাত তুলে নিষিদ্ধ শাহাদাত
নড়াইলে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে যুবকের মৃত্যু
নওয়াপাড়ায় ভবদহ জলাবদ্ধতা নিরসন আন্দোলন কমিটির মতবিনিময় সভা
শার্শায় ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত
বাগেরহাটে পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল
অভয়নগর উপজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্তরে মিনি যানবাহন ও এ্যাম্বুলেন্স স্ট্যান্ড !
ঝিকরগাছায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের পরেও বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে পিঁয়াজ!
যশোরের ৬টির মধ্যে ৪টিতে আসছেন বর্তমান এমপি
অভিযোগ বাক্স ঝুঁলিয়েছেন এমপি তন্ময় : আতংকে মাদক সিন্ডিকেট
সিপাই থেকে ওসি হয়ে শতকোটি টাকার পাহাড়! দুদকে অভিযোগ
নওয়াপাড়ার ধোপাদী গ্রামে ৩ ইভটিজারকে গণধোলাই
লোহাগড়া হাসপাতাল থেকে ডেঙ্গু রোগীকে বের করে দিয়েছেন সেবিকা কল্পনা ও সাধনা!
নিষিদ্ধ ঘোষিত এনার্জি ড্রিংক্স
রাজগঞ্জে কাজীকে ৬ মাসের জেল, মেয়ের পিতা চাচা ও স্বামীকে জরিমানা
পথ দেখালো মডেল স্কুল :অনুসরণ করলো আল হেলাল: নওয়াপাড়ায় গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় আবারও সংঘর্ষ : নদী সাঁতরে প্রাণ রক্ষার চেষ্টা
নওয়াপাড়ায় মাছ বাজারে ১ কেজি বাটখারার ওজন ৮শ’ গ্রাম :
নওয়াপাড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্যানেল মেয়র রবিন অধিকারী ব্যাচাসহ ৪ জন আহত
 চোখের জল ফেলবেন নওয়াপাড়া শংকরপাশা সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী সরোয়ার!
নওয়াপাড়া কলেজের স্বর্ণযুগ : ডাক্তারী পড়ার সুযোগ পেলো ৬ মেধাবী মুখ
এমপি কাজী নাবিল আহমেদের হাতের ছোঁয়ায় চাঁচড়া ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন
অভয়নগরে কলেজ ছাত্রীকে স্কুল ছাত্রের ইভটিজিং : কারাদন্ড
অতিরিক্ত সচিব হলেন ঝিকরগাছার কৃতি সন্তান আব্দুল বারিক
বাঘারপাড়ায় ধর্ষণের পর হত্যা করে জয়নবের লাশ ঘেরে ফেলেছে হাফেজ মুজিবুল
বসুন্দিয়ায় ভৈরব ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ : কাঁপছে সেঁতু, আতংকে পথচারী ও এলাকাবাসী
অভয়নগরে ব্যবসায়ীর বাড়ির রিজার্ভ ট্যাংকি থেকে রং মিস্ত্রীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার
নওয়াপাড়ায় ফার্মেসিতে নকল ওষুধ বিক্রি হচ্ছে !
নওয়াপাড়ায় রং মিস্ত্রী ঠিকাদার হাবিব হত্যার রহস্য উম্মোচন : ঘাতক মামুন আটক

ই-পত্রিকা-কাগজে যেমন অনলাইনে তেমন

ePaper

আর্কাইভ

নভেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
প্রয়োজনীয় নাম্বার

অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা : ০১৭১৭৮১৩৩৪৪

নওয়াপাড়া রেলওয়ে মাষ্টার : ০১৭১৮৫৮১০৯৪

হাইওয়ে থানা ওসি : ০১৭৬৯৬৯০৪৫৯

UNO অভয়নগর : ০১৭৩৩০৭৪০৩৫

অভয়নগর থানা : ০১৭১৩ ৩৭৪১৬৭

ফায়ার সার্ভিস : ০১৭৩২ ৫৫০৪৬০

জাতীয় জরুরী সেবা : ৯৯৯

দুর্ভোগ ও পরিবেশ এর আরও খবর