আজ শনিবার ৬ই জুন, ২০২০ ইং ভোর ৫:২৬

add

যশোরে পলি হাউজে ফুল সবজি চাষ অসময়ের ফুল সবজি

সাকিরুল কবীর রিটন
প্রকাশিত: অক্টোবর ১৪, ২০১৯ সময় : ২১:৩৪:২৮

শীতের ফুল এবং সবজি মিলছে গরমেও। আবার গরমের সবজি ও ফুল মিলছে শীতেও। এর ফলে অসময়ে চাষিরা যেমন দু’পয়সা লাভের মুখ দেখছেন, তেমনই ক্রেতারাও সারা বছরই টাটকা সবজি ও ফুল পাচ্ছেন। ইউরোপে ব্যবহৃত পদ্ধতি অনুযায়ী লোহার পাইপের খুঁটির উপরে ও চারদিকে ২০০ মাইক্রনের পলিথিন দিয়ে ‘পলি-হাউস’ গড়ে চাষ, এই প্রল্পের অন্যতম বিশেষত্ব। যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কয়েকটি গ্রামে ৭ জন কৃষক ‘পলি হাউজে’ সবজি এবং ফুল চাষ করছে। এতে অন্যান্য গ্রামের কৃষকরাও আগ্রহ প্রকাশ করছেন।

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) সেচ বিভাগের বাস্তবায়নে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলায় ফুল ও সবজি উৎপাদন সম্প্রসারণে ড্রিপ ইরিগেশন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে সাত কোটি ছয় লাখ টাকা। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সৌরচালিত ডাগ ওয়েল, ড্রিপ ইরিগেশন ও ফ্লাওয়ার শেড নির্মাণ। ফলে কর্মসূচি অঞ্চলে কৃষিতে খরচ ও ঝুঁকি কমায় লাভবান হচ্ছে কৃষক।

২০১৭ সালের জুন মাসে শুরু হওয়া এই কর্মসূচির আওতায় ফুলের রাজধানীখ্যাত উপজেলার গদখালী, পানিসারা, নাভারণ, শিমুলিয়া ও নির্বাসখোলা ইউনিয়নে ১৫টি সৌরচালিত ডাগ ওয়েল ও ড্রিপ ইরিগেশন এবং সাতটি পলি শেড নির্মাণ করা হয়। এই কর্মসূচির এক্সক্লুসিভ ইঞ্জিনিয়ার মো. মাহাবুব আলম। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। ২০২২ সালের জুন মাসে কর্মসূচির মেয়াদ শেষের আগেই সব কাজ সম্পন্ন হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

সরেজমিনে কথা হয় পানিসারা গ্রামের ফুল চাষি ইসমাইল হোসেনের সঙ্গে। তিনি জানান, এই কর্মসূচির আওতায় তাঁকে ১০০৮ বর্গফুটের একটি পলি শেড, সৌরচালিত ডাগ ওয়েল ও ড্রিপ ইরিগেশনের সুবিধা দেওয়া হয়েছে। পলি শেডে জারবেরা ও গোলাপ ফুল, তরমুজ এবং এসকস চাষ করেছেন। শেডে তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ থাকায় ঝুঁকি কম। কীটনাশকের খরচ ৭০ শতাংশ কম বলে দাবি করেন কৃষক ইসমাইল।

বিএডিসি’র উদ্যোগে উন্নত কৃষি-কৌশল সম্পর্কে অবহিত করতে এখানকার চাষিদের ইতোমধ্যে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। সেখানে চাষিরা পলি-হাউসের মাধ্যমে চাষাবাদের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে ধারণা লাভ করেছেন। পলি-হাউস বানানো খরচসাপেক্ষ বলে সরকার এই প্রকল্পে ভর্তুকি দিচ্ছে। যশোরে প্রথম এই প্রকল্পে ৭জন কৃষককে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সেখানে প্রায় ৭ বিঘা জমিতে তারা সবজিও ফুল উৎপাদন করছে।

কৃষিবিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, পলি-হাউস পদ্ধতিতে চারদিকে প্লাস্টিকের ছাউনি থাকায় সূর্যের তাপ সরাসরি খেতে ঢুকতে পারে না। ফলে, শীতের সব্জি গরমেও চাষ করতে অসুবিধা হয় না। এই পদ্ধতিতে পানির অপচয় ঠেকানো হয়। সার দেওয়া হয় নিয়ন্ত্রিত পদ্ধতিতে। প্লাস্টিকের চাদর থাকায় দুর্যোগের প্রকোপও অনেকটা ঠেকানো সম্ভব হয়। সব মিলিয়ে পলি-হাউস পদ্ধতিতে ফসলের অন্তত ২০ শতাংশ ফলন বেশি হয় বলে দাবি কৃষি বিশেষজ্ঞদের।

যেসব চাষি পলি-হাউস পদ্ধতিতে চাষ করছেন, তাদের দেখাদেখি অন্য কৃষকরাও এখন আগ্রহী হয়ে উঠছে। ঝিকরগাছার পাটুয়াপাড়ার চাষি মঞ্জুরুল আলম বলেন, শীতকালে দিন পনেরোর ব্যবধানে সমস্ত সবজি বাজারে চলে আসে। ফলে তখন সবজির দাম কম থাকে। শীতের সময় কিছু-কিছু সবজির দাম প্রায় পাওয়াই যায় না। তিনি আরও জানিয়েছেন, অগ্রহায়নের মাঝামাঝি টমেটো তুলে কেজি প্রতি ২০/২৫ টাকা দর পেতেন। কিন্তু পলি-হাউসে টমেটো করে জৈষ্ঠ্য মাসের প্রথম দিকে বাজারে গড়ে ৪০/৫০ টাকা করে প্রতি কেজি টমেটো বিক্রি করতে পারবেন।

ফুল চাষেও ভাল ফল দিচ্ছে ‘পলি হাউস’ পদ্ধতি। বিয়েবাড়ি বা অনুষ্ঠানের মঞ্চ সাজাতে ব্যবহৃত জারবেরা ফুল যেমন। সাধারণত শীতের মৌসুমে এই ফুল যশোরের গদখালী এলাকায় চাষ করেন অনেকে।

সব মিলিয়ে নতুন এ প্রযুক্তির মাধ্যমে উৎপাদন খরচ কমিয়ে দ্বিগুণ লাভ করা সম্ভব বলছেন কৃষকরা। পর্যাপ্ত উৎপাদন হলেও সবজি ও ফুল রফতানিতে বিশ্বের অন্য দেশের চেয়ে পিছিয়ে বাংলাদেশ। এ পরিস্থিতিতে ২০১৫ সালে পলি হাউজ ধারণা নিয়ে কাজ শুরু করেন যশোর বিএডিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুব আলম। ২০১৮ সালে যশোরের ৭টি পয়েন্টে ৭ কৃষক নিয়ে শুরু হয় পাইলট প্রকল্প। কৃষকরা বলছেন, পলি হাউজ প্রযুক্তির মাধ্যমে চাষে খরচ কমার পাশাপাশি বেড়েছে উৎপাদন। এতে নিরাপদ সবজি উৎপাদন ও মুনাফার পাশাপাশি তৈরি হবে রফতানির ক্ষেত্র। এদিকে স্থানীয় কৃষকরা বলেন, এই সবজিগুলো বিষমুক্ত। এর আগে যে পদ্ধতিতে চাষ করতাম তাতে খরচ অনেক বেশি।

লেবার কস্ট, সার ও কীটনাশক বেশি দিতে হত। তারপরও মানসম্পন্ন ফুল পেতাম না। উন্নত ফুল করতে না পারায় রেটটাও ভাল পেতাম না। কিন্তু এই পদ্ধতিতে আমার খরচ বেঁচে গেছে। একটা লেবার হলেই আমার সারাদিন চলে যায়। প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা আরও বলছেন, নতুন এ প্রযুক্তির বিস্তার হলে কৃষিসহ আর্থ-সামাজিক খাতে বড় পরিবর্তন আসবে। সেইসাথে তৈরি হবে কর্মসংস্থান। যশোর জেলা (সেচ)-এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুব আলম আরও বলেন, বর্তমান সরকারের চাহিদা কৃষিকে বাণিজ্যকরণ করতে হবে এবং একে স্মার্টনেস আনতে হবে। আমি মনে করি পলি হাউজ, ট্যাগ অয়েল ও জিপ ইরিগেশন এসব পদ্ধতির মাধ্যমে কৃষির সম্পূর্ণ চিত্রই পরিবর্তন করা সম্ভব। এখানে উচ্চ শিক্ষিত ছেলেরা আসলে তাদের গায়ে খেটে কোন পরিশ্রম করতে হচ্ছে না। এ প্রযুক্তির ব্যাপক ব্যাপক ব্যবহারের উদ্যোগ নিতে কৃষি মন্ত্রণালয়ে পরিকল্পনা দিয়েছে বিএডিসি। এটি পাস হলে সাধারণ কৃষক পর্যায়ে প্রশিক্ষণ দেবে সংস্থাটি।#

মাদক, জুয়া ও বাল্য বিয়ে রোধ সহ আইনশৃংখলা রক্ষায় সমাবেশ
রাজগঞ্জের শাহাপুরে কৃষকদের মাঠ দিবস কর্মসূচী অনুষ্ঠিত
গণপরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় প্রতিশ্রুতি ভঙ্গের শামিল – ওবায়দুল কাদের
করোনায় আরও এক চিকিৎসকের মৃত্যু
করোনা সংক্রমণে শীর্ষ ২০-এ বাংলাদেশ
করোনার কারণে দুর্নীতিপরায়ণদের প্রতি নমনীয় হওয়ার সুযোগ নেই – দুদক চেয়ারম্যান
করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হতে শতভাগ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে -সিটি মেয়র
পরিবেশ সংরক্ষণে যত্নবান হলে ভাইরাস থেকে সুরক্ষা দেয়া সহজ হতো – তথ্যমন্ত্রী
শুটিংয়ে ফিরতে নারাজ সজল
করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি যেসব জায়গায়
তিন দেশের যেকোনো এক ভেন্যুতে এএফসি কাপ
দূর্বৃত্তের হাতে মা খুন : বাবা কারাগারে : কিছুতেই থামছেনা শিশুটির কান্না
খুলনার ল্যাবে যশোর জেলার ৬ জনের করোনা শনাক্ত : উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু
করোনা মহামারীতেও থেমে নেই ঝিনাইদহ সদর উপজেলা কৃষি বিভাগ
জলবায়ু সুবিচারের দাবিতে শ্যামনগরে তরুণদের ক্লাইমেট স্ট্রাইক
শার্শায় আম্পানে ঘরহারা মানুষের খোলা আকাশের নিচে বসবাস
যশোরে কারাতে জাজ জুয়েলের স্মরণে দোয়া মাহফিল
দূর্বৃত্তের হাতে মা খুন : বাবা কারাগারে : কিছুতেই থামছেনা শিশুটির কান্না
কালিগঞ্জের তালিকা তৈরীতে অনিয়ম : মৌতলা ইউপি’র সদস্য ডালিম বরখাস্ত
নড়াইলে ইউপি সদস্য হত্যা মামলায় কায়েস চেয়ারম্যান আটক
খুলনায় পরিবেশ বান্ধব সবুজ পৃথিবী গড়তে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান
খুলনার ল্যাবে যশোর জেলার ৬ জনের করোনা শনাক্ত : উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু
‘গোয়াল ঘর আপনার গরু আমাদের’ লিখে গরু চুরি : গণপিটুনিতে নিহত তিন : আটক এক
যশোরের ৬টির মধ্যে ৪টিতে আসছেন বর্তমান এমপি
অভিযোগ বাক্স ঝুঁলিয়েছেন এমপি তন্ময় : আতংকে মাদক সিন্ডিকেট
করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তির লক্ষে বিশেষ দোয়া ও লিফলেট বিতরণ করলেন- নওয়াপাড়ার গদ্দীনশীন পীর
সিপাই থেকে ওসি হয়ে শতকোটি টাকার পাহাড়! দুদকে অভিযোগ
কোথাও ঠাঁই নেই : কবরস্থানে মা- ছেলের বসবাস
নওয়াপাড়ার ধোপাদী গ্রামে ৩ ইভটিজারকে গণধোলাই
যশোরের নতুন পুলিশ সুপার হলেন আশরাফ হোসেন
লোহাগড়া হাসপাতাল থেকে ডেঙ্গু রোগীকে বের করে দিয়েছেন সেবিকা কল্পনা ও সাধনা!
বাঘারপাড়ায় ধর্ষণের পর হত্যা করে জয়নবের লাশ ঘেরে ফেলেছে হাফেজ মুজিবুল
নিষিদ্ধ ঘোষিত এনার্জি ড্রিংক্স
যশোর শিক্ষাবোর্ডের সাড়ে ২৯ লাখ টাকা অপচয় বন্ধ করে দিলেন ড. মোল্লা আমীর হোসেন
রাজগঞ্জে কাজীকে ৬ মাসের জেল, মেয়ের পিতা চাচা ও স্বামীকে জরিমানা
নওয়াপাড়ায় মাছ বাজারে ১ কেজি বাটখারার ওজন ৮শ’ গ্রাম :
পথ দেখালো মডেল স্কুল :অনুসরণ করলো আল হেলাল: নওয়াপাড়ায় গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় আবারও সংঘর্ষ : নদী সাঁতরে প্রাণ রক্ষার চেষ্টা
অভয়নগরে এই প্রথম করোনা রোগী শণাক্ত
 চোখের জল ফেলবেন নওয়াপাড়া শংকরপাশা সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী সরোয়ার!
নওয়াপাড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্যানেল মেয়র রবিন অধিকারী ব্যাচাসহ ৪ জন আহত
গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী গরুর গাড়ি ও গাড়িয়াল পেশা বিলুপ্তপ্রায়
এমপি কাজী নাবিল আহমেদের হাতের ছোঁয়ায় চাঁচড়া ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন

ই-পত্রিকা-কাগজে যেমন অনলাইনে তেমন

ePaper

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
প্রয়োজনীয় নাম্বার

অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা : ০১৭১৭৮১৩৩৪৪

নওয়াপাড়া রেলওয়ে মাষ্টার : ০১৭১৮৫৮১০৯৪

হাইওয়ে থানা ওসি : ০১৭৬৯৬৯০৪৫৯

UNO অভয়নগর : ০১৭৩৩০৭৪০৩৫

অভয়নগর থানা : ০১৭১৩ ৩৭৪১৬৭

ফায়ার সার্ভিস : ০১৭৩২ ৫৫০৪৬০

জাতীয় জরুরী সেবা : ৯৯৯

খুলনা বিভাগীয় এর আরও খবর

//