আজ শনিবার ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং বিকাল ৪:৪৫

add

মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌ-চ্যানেল নাব্যতা সংকটসহ নানামুখি সমস্যায় জর্জরিত

সোহরাব হোসেন রতন, বাগেরহাট
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৯ সময় : ২৩:৩২:০১

মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌ-প্রটোকল চ্যানেলটি এখন নানা সমস্যায় জর্জরিত। আবারও দেখা দিতে পারে নাব্যতা সংকট, বিআইডব্লিউটিএ এর সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নজরদারী ও ব্যবস্থাপনার অভাবে নানা মুখি সংকটে পড়তে পারে ওই নৌ-চ্যানেলটি। এমনটি দাবি করেছেন বিভিন্ন পরিবেশবাদী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সমস্যা গুলো চিহ্নিত করে তা দ্রুত নিরসন করা না গেলে হুমকির মুখে পড়বে অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ এই নৌ-রুটটি। এতে সুন্দরবন, মোংলা বন্দর, নদী-খালের পানি প্রবাহ ব্যাহত ও পরিবেশ-প্রতিবেশের উপর মারাত্মক বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। চ্যানেলটি খনন সংশ্লিষ্ট বিআইডব্লিউটিএ ও স্থানীয় পরিবেশবাদী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত ৯ জানুয়ারী ২০১৪ সুন্দরবনের শেলা নদীতে ফার্নেস অয়েলবাহী ট্যাংকার ডুবির পর তেল ছড়িয়ে পড়ে সুন্দরবনে। এরপর দেশী বিদেশী পরিবেশবাদীরা ওই নৌপথ বন্ধের জন্য আন্দোলন শুরু করেন। সরকার সুন্দরবন, মোংলা বন্দর ও এ এলাকার পরিবেশ-প্রতিবেশের গুরুত্ব বিবেচনা করে মোংলা-ঘষিয়ালী নৌপথটি দ্রুত খনন শুরু করে। গত ১ জুলাই ২০১৪ থেকে কাজটি বাস্তবায়ন শুরু করে বিআইডব্লিউটিএ।

 

এ পর্যন্ত ঐ সংস্থা নদী ড্রেজিং করে প্রায় ৩ কোটি ঘন মিটার (২ কোটি ৮১ লক্ষ) মাটি খনন করে উত্তোলন করে। নাব্যতা সংকট রোধে বিআইডব্লিউটিএ ও বাংলাদেশ নেভীর মোট ৫টি ড্রেজার সার্বক্ষনিক মাটি খনন কাজে নিয়োজিত রয়েছে। গত ৬ মে ২০১৫ থেকে চ্যানেলটিতে নৌ-যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়। পূর্ণ জোয়ারের সুবিধা নিয়ে ৮ ফুট থেকে ১২ ফুট ড্রাফটের কার্গো ও ভেসেল চলাচল করে। বিআইডব্লিউটিএ এর কর্মকর্তারা জানান, চ্যানেলটি খুলে দেয়ার পর এ পর্যন্ত ছোট বড় প্রায় ১ লক্ষ ৩০ হাজার নৌ-যান চলাচল করেছে। বর্তমানে ভাটার সময় ১২ থেকে ১৪ ফুট ও জোয়ারের সময় ২০ থেকে ২৪ ফুট গভীরতায় পানি থাকে। চ্যানেলের দুই পাড়ে বারবার মাটি প্রতিস্থাপনের ফলে বেশ কয়েকটি স্থানে টিলার মত উচু হয়ে গেছে। এতে ড্রেজিংকৃত মাটি প্রতিস্থাপন প্রায় অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে পশুর নদীর মুখ হতে জয়খা পয়েণ্ট পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার এলাকায় দুই পাড়ে মাটি ফেলার জায়গার অভাব চরম আকারে ধারণ করেছে। ওই স্থানের নদীর তলদেশে পলি পড়ে দ্রুত ভরাট হচ্ছে। যে কারনে অবিরাম ড্রেজিং করে নাব্যতা রক্ষা করা হচ্ছে।

 

অপর দিকে চ্যানেলের অন্য পাশে ঘষিয়াখালী পয়েন্টে সাড়ে ৩ কিলোমিটার নদীর দুই পাড়ে বিআইডব্লিউটিএ এর বা সরকারি জায়গা না থাকায় মাটি ফেলা সম্ভব হচ্ছে না। এতে খনন কাজ মারাত্মক ব্যহত হচ্ছে। ভরাটকৃত ডাইকের মাটি দ্রুত সরিয়ে ফেলতে না পারলে ড্রেজিং কার্যক্রম যে কোন সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন কর্মকর্তা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড টাইডাল বেসিন নির্মান, চ্যানেল সংলগ্ন শাখা নদী ও শাখা খাল দ্রুত খনন করে পানি প্রবাহ বৃদ্ধি করতে না পারলে আবারও পলি পড়ার হার বেড়ে যেতে পারে। পরিবেশবাদী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন, মাটি ফেলার জায়গা তৈরী, টাইডাল বেসিন নির্মান, শাখা নদী ও শাখা খাল দ্রুত খনন, চ্যানেল পাড়ের স্তুপকৃত মাটি দ্রুত সরিয়ে নেয়া, বিশেষ করে মোংলা বন্দর এর পশুর নদীর থেকে জয়খা পর্যন্ত স্তুুপকৃত মাটি সরিয়ে ফেলা খুবই জরুরী। এটা না করা হলে ড্রেজিং কার্যক্রম মুখ থুবড়ে পড়তে পারে। এক তথ্যে দেখা গেছে প্রতি বছর সংরক্ষন ড্রেজিং ও প্রশস্তকরণের জন্য যে ব্যয় বরাদ্দ ধরা হয়েছে তা ব্যপক কাটছাট করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর এমন অগ্রাধীকার প্রকল্পে ব্যয় কাটছাট করা হলেও গত প্রায় ৫ বছর ধরে দ্বিমুখি নৌ-যান চলাচলের জন্য চ্যানেল প্রশস্ত করনের কার্যক্রম একটুও এগোয়নি। এটি বিআইডব্লিউটিএ এর ব্যর্থতা কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার বলে মত দিয়েছেন অনেকে।

 

এ ব্যাপারে পরিবেশ সুরক্ষায় উপকূলীয় জোটের আহবায়ক এ্যাডভোকেট শাহনেওয়াজ বাবুল জানান, সুন্দরবন সুরক্ষা, মোংলা বন্দর, জীব বৈচিত্র্যও এ এলাকার পরিবেশ-প্রতিবেশ সুরক্ষা এবং মানুষের জীবন-জীবিকা রক্ষার্থে চ্যানেলটির নাব্যতা বৃদ্ধি করতে হবে। এ জন্য টাইডাল বেসিন ও নেবিগেশন লকসহ যা যা করনীয় সেটি করতে হবে। এ জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর জোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। নদী গবেষণাকারী প্রতিষ্ঠান সিইজিআইএস এর সিনিয়র স্পেশালিষ্ট কামাল উদ্দিন বলেন, বর্তমান অবস্থায় চ্যানেলটির নাব্যতা ধরে রাখতে হলে চ্যানেল পাড়ের স্তুপকৃত মাটি দ্রুত সরিয়ে ফেলতে হবে। তিনি আরও জানান, চ্যানেল সংলগ্ন নদী-খাল দ্রুত খনন সম্পন্ন, একাধিক টাইডাল বেসিন নির্মান, মোংলা থেকে জয়খা এলাকার বড় বড় খালে নির্মিত স্লুইসগেট অপসারণ করতে হবে। জলাভূমিগুলো উন্মুক্ত করতে হবে। বিআইডব্লিউটিএ এর উপ-প্রধান প্রকৌশলী (ড্রেজিং) মোঃ সাইদুর রহমান বলেন, মুঠোফোনে কথা হলে তিনি সমস্যা সমাধানের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।

ঝিনাইদহে রেজাউল করিম উপ-মহাসচিব নির্বাচিত
অভয়নগরে আন্ত:স্কুল ও মাদরাসা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
নওয়াপাড়ায় নওশের আলী স্মৃতি ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন
চেঙ্গুটিয়ায় ১৬ দলীয় ফুটবল টুর্নামেণ্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত
ফকিরহাটে ভূলক্রমে বিকাশে আসা ২৫ হাজার টাকা হস্তান্তর
ফকিরহাট বিএনপি’র সভাপতি টুকুনের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন
চৌগাছায় ৬ ছেলের জননী ও একজন সফল মা’য়ের গল্প
রূপসায় ফুলে ফুলে সিক্ত হলেন জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত
ডুমুরিয়া হানাদার মুক্ত দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনাসভা
কেশবপুরে বুড়লিয়া খালের বাঁধ ধ্বসে ১০ বিল জলাবদ্ধ
অভয়নগরের সিংগাড়ীতে ইসলামী ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং শাখার উদ্বোধন
বিজয়ের মাসে চিরবিদায় নিলেন সংগীতগুরু গৌর গোপাল হালদার
বাকেশি’র ফুটবল টুর্ণামেন্টে সিবিএ একাদশ চ্যাম্পিয়ন
রোহিঙ্গা গণহত্যা ইস্যুতে সিদ্ধান্ত শিগগিরই: আইসিজে প্রেসিডেন্ট
চলতি বছরে ২২ জনের মৃত্যুদন্ড কার্যকর যুক্তরাষ্ট্রে
এর আগে এত ভয়াবহ বার্ন দেখিনি : সামন্ত লাল
রেল দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ রেলপথ ও ব্রিজ সংস্কার না হওয়া : রেলমন্ত্রী
বিরোধী জোটে সক্রিয় সরকারের দালাল চক্র : ডা. ইরান
টিউলিপ ও রূপা হকের হ্যাট্টিক : টানা ৪বার সংসদ সদস্য হলেন রুশনারা আলী
নিহত পাটকল শ্রমিকের জানাজা সম্পন্ন : অনশন অব্যহত : অসুস্থ্য শ্রমিকের সংখ্যা বাড়ছে
সরকার আবার আগুন নিয়ে খেলা শুরু করেছে : রিজভী
বিশ্বের প্রভাবশালী ১শ’ নারীর তালিকায় ২৯তম শেখ হাসিনা
যশোরের ৬টির মধ্যে ৪টিতে আসছেন বর্তমান এমপি
অভিযোগ বাক্স ঝুঁলিয়েছেন এমপি তন্ময় : আতংকে মাদক সিন্ডিকেট
সিপাই থেকে ওসি হয়ে শতকোটি টাকার পাহাড়! দুদকে অভিযোগ
নওয়াপাড়ার ধোপাদী গ্রামে ৩ ইভটিজারকে গণধোলাই
লোহাগড়া হাসপাতাল থেকে ডেঙ্গু রোগীকে বের করে দিয়েছেন সেবিকা কল্পনা ও সাধনা!
নিষিদ্ধ ঘোষিত এনার্জি ড্রিংক্স
রাজগঞ্জে কাজীকে ৬ মাসের জেল, মেয়ের পিতা চাচা ও স্বামীকে জরিমানা
পথ দেখালো মডেল স্কুল :অনুসরণ করলো আল হেলাল: নওয়াপাড়ায় গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় আবারও সংঘর্ষ : নদী সাঁতরে প্রাণ রক্ষার চেষ্টা
নওয়াপাড়ায় মাছ বাজারে ১ কেজি বাটখারার ওজন ৮শ’ গ্রাম :
বাঘারপাড়ায় ধর্ষণের পর হত্যা করে জয়নবের লাশ ঘেরে ফেলেছে হাফেজ মুজিবুল
নওয়াপাড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্যানেল মেয়র রবিন অধিকারী ব্যাচাসহ ৪ জন আহত
 চোখের জল ফেলবেন নওয়াপাড়া শংকরপাশা সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী সরোয়ার!
নওয়াপাড়া কলেজের স্বর্ণযুগ : ডাক্তারী পড়ার সুযোগ পেলো ৬ মেধাবী মুখ
এমপি কাজী নাবিল আহমেদের হাতের ছোঁয়ায় চাঁচড়া ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন
অভয়নগরে কলেজ ছাত্রীকে স্কুল ছাত্রের ইভটিজিং : কারাদন্ড
অতিরিক্ত সচিব হলেন ঝিকরগাছার কৃতি সন্তান আব্দুল বারিক
বসুন্দিয়ায় ভৈরব ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ : কাঁপছে সেঁতু, আতংকে পথচারী ও এলাকাবাসী
অভয়নগরে ব্যবসায়ীর বাড়ির রিজার্ভ ট্যাংকি থেকে রং মিস্ত্রীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার
নওয়াপাড়ায় ফার্মেসিতে নকল ওষুধ বিক্রি হচ্ছে !
নওয়াপাড়ায় রং মিস্ত্রী ঠিকাদার হাবিব হত্যার রহস্য উম্মোচন : ঘাতক মামুন আটক

ই-পত্রিকা-কাগজে যেমন অনলাইনে তেমন

ePaper

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
প্রয়োজনীয় নাম্বার

অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা : ০১৭১৭৮১৩৩৪৪

নওয়াপাড়া রেলওয়ে মাষ্টার : ০১৭১৮৫৮১০৯৪

হাইওয়ে থানা ওসি : ০১৭৬৯৬৯০৪৫৯

UNO অভয়নগর : ০১৭৩৩০৭৪০৩৫

অভয়নগর থানা : ০১৭১৩ ৩৭৪১৬৭

ফায়ার সার্ভিস : ০১৭৩২ ৫৫০৪৬০

জাতীয় জরুরী সেবা : ৯৯৯

খুলনা বিভাগীয় এর আরও খবর