ফেরিঘাটে তিতাসের মৃত্যু: যুগ্ম সচিব ও ডিসির দোষ পায়নি তদন্ত কমিটি

কাঁঠালবাড়ী ঘাটে ফেরির অপেক্ষায় থাকা স্কুলছাত্র তিতাস ঘোষের মৃত্যুর ঘটনায় যুগ্ম সচিব আবদুস সবুর ম-ল ও মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. ওয়াহিদুল ইসলামের কোনো দোষ খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি। বরং ঘাটের ব্যবস্থাপক সালাম হোসেনসহ তিনজনকে দায়ী করে অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। অপর দুজন হলেন ঘাটের প্রান্তিক সহকারী খোকন মিয়া ও উচ্চমান সহকারী ফিরোজ আলম। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ের দুই ঘণ্টা দেরীতে ফেরি ছাড়া হয়। এ কারণে তিতাসের মৃত্যুর দায় এ তিনজন এড়াতে পারেন না।

যুগ্ম সচিব আবদুস সবুর ম-লের কোনো দোষ নেই। কেননা তিনি জানতেন না যে ফেরিঘাটে মুমূর্ষু রোগী আছে। একইভাবে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসকও বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত ছিলেন না। কোনো ব্যক্তি বিশেষের জন্য কোনোভাবেই ফেরি দেরী করে ছাড়া যাবে না বলে প্রতিবেদনে সুপারিশ করা হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. রেজাউল হাসান নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি এ প্রতিবেদন দাখিল করেছে।

অপর দুই সদস্য হলেন নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আবদুস সাত্তার শেখ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা বিভাগের যুগ্ম সচিব তোফায়েল ইসলাম। বৃহস্পতিবার প্রতিবেদন দাখিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার বলেন, তদন্ত কমিটি যুগ্ম সচিব আবদুস সবুর ম-লের কোনো ত্রুটি খুঁজে পায়নি। কারণ ফেরি আটকে রাখা হয়েছে- এ বিষয়টি তিনি জানতেন না। একইভাবে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসকও বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত ছিলেন না। তাই তদন্ত প্রতিবেদনে তাদের দায়ী করা হয়নি। তবে এ ঘটনায় অতি উৎসাহী হয়ে ঘাটের ব্যবস্থাপক সালাম হোসেন, ঘাটের প্রান্তিক সহকারী খোকন মিয়া ও উচ্চমান সহকারী ফিরোজ আলমকে দায়ী করা হয়েছে। কারণ তাদের কারণে ফেরি বন্ধ ছিল।

এই বিভাগের আরো সংবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

আর্কাইভ হতে খুঁজুন

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১