আজ মঙ্গলবার ৭ই জুলাই, ২০২০ ইং সকাল ৭:৫১

add

কালীগঞ্জে বাণিজ্যিক ভাবে আবাদ হচ্ছে তেজপাতা : লাভবান হচ্ছে কৃষকেরা

বেলাল হুসাইন বিজয়,কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৩, ২০২০ সময় : ২২:৪৪:৫৪

তেজপাতা একটি মশলা জাতীয় ফসল। বাংলাদেশ গৃহিনী বা যে কোন রেস্টুরেন্টে তেজপাতা ছাড়া রান্না হয় না। তরকারি ছাড়াও বিভিন্ন মিষ্টান্ন তৈরিতেও তেজাপাতা ব্যবহৃত হয়। তেজপাতার অনেক ওষুধী গুনও রয়েছে। বাংলাদেশের অনেক জেলায় তেজপাড়ার গাছ দেখা হলেও বাণিজ্যিক ভাবে এর চাষ কম দেখা যায়।

 

 

ঝিনাইদহের জেলার বিভিন্ন উপজেলায় বানিজ্যিক ভাবে তেজপাতার আবাদ হচ্ছে। এর মধ্যে কালীগঞ্জ উপজেলায় প্রায় ৩০ বিঘা জমিতে আবাদ হচ্ছে। চাষী আছে প্রায় ৬০জন। একটি গাছ থেকে বছরে দুই বার পাতা তোলা যায়। রোগ বালাই তেমন না থাকায় এবং ফসলের তেমন ক্ষতি না থাকায় এক বিঘা জমি থেকে প্রায় ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা বছরে লাভ করা যায়।

 

 

তেজপাতা চাষী কালীগঞ্জ উপজেলার সুন্দর দুর্গাপুর ইউনিয়নের আবুল কালাম আজাদ জানান, তিনি নিজস্ব ৩৫ শতাংশ জমিতে তেজপাতা চাষ করেছেন। গত ৪ বছর ধরে তিনি এ চাষ করছেন। খুলনা থেকে তিনি তেজপাতার চারা শুরু করেন। ৩৫ শতাংশ জমিতে প্রায় ১৩০টি তেজপাতা গাছ রয়েছে। বছরে তিনি দুই বার সার প্রয়োগ করেন। আর বছরে একটি গাছ থেকে ২বার তেজপাতা সংগ্রহ করছেন। প্রতিকেজি তেজপাতা ৮০-৯০ টাকা দরে বিক্রি করে থাকেন।

 

 

৪ বছর বয়সী একটি গাছ থেকে ৩৫-৪০ কেজি পাতা তিনি সংগ্রহ করতে পারছেন। দুই বছর বয়স থেকেই তিনি তেজপাতা সংগ্রহ করছেন। আবুল কালাম আজাদ জানান, তার বাগানে প্রথম বছর ৩মন তেজপাতা উৎপাদন হয়। এর পরের বছর ৯ মন পাতা সংগ্রহ করেন। সর্বশেষ ২০১৯ সালে একই বাগান থেকে ২৩মন তেজপাতা তিনি সংগ্রহ করেছেন। আগামী মৌসুমে তিনি ২০মন তেজপাতা পাবেন বলে আশা করছেন।

 

 

তিনি বলেন প্রতি কেজি তেজপাতা ৮০-৯০ টাকা দরে পাইকারী বিক্রি করেন। সেই ক্ষেত্রে এবার তিনি এই বাগান থেকে প্রায় ১ লাখ টাকার তেজ পাতা বিক্রি করবেন। খরচ বাদ দিয়ে তার জমি থেকে প্রায় ৮০ হাজার টাকা লাভ থাকবে। এলাকার অন্য তেজপাতা চাষীরা জানান, তেজপাতা চাষে তেমন খরচ হয় না।

 

 

চারা লাগানো আর একটু পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখাই কাজ। রোগ বালাই বলতে কেমন কিছুই নেই। তবে বসন্তের সময় একটু পোকা লাগে। সেই সময় একটি ওসুধ এসপ্রে করতে হয়। এক বিঘা জমিতে আনুমানিক খরচ ১০/১২ হাজার টাকা মাত্র। চাষীরা আরো জানান, তেজাপাতার সাথে অন্য ফসল যেমন হলুদ, কলা গাছও চাষ করা যায়। এতে এক সাথে দুই ধরনের ফসল পাওয়া যায়।

 

 

তেজপাতা কৃষক জাহিদ হাসান জানান, তিনি জানান প্রথমে জমি প্রস্তুত তরে তেজপাতা রোপন করতে হয়। এর পর জমিতে প্রতি বছর সেচ দিতে হয়। বছরে দুই সার দিতে হয়। তিনি বলেন, অন্য ফসলের চেয়ে খরচ কম। তেজপাতা চাষে কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা করছে কৃষি অফিসাররা। তাদের পরামশেই চলছে তেজপাতা চাষাবাদ। এলাকায় নতুন ভাবে এই মসলা জাতিয় ফসল চাষ করা হচ্ছে। তিনি আশা করছেন অন্য ফসলের চেয়ে তেজপাতায় অনেক বেশি লাভ হবে।

 

 

কালীগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার জাহিদুল করিম জানান, কালীগঞ্জ উপজেলায় প্রায় ৩০ বিঘা জমিতে বাণিজ্যিক ভাবে তেজপাতা চাষ হচ্ছে। এর মধ্যে ১ নং সুন্দপুর দুর্গাপুর ইউনিয়নের কাদিরকোল,সিনদহ এলাকায় ২০ বিঘা জমিতে ৫০জন চাষী এই চাষ করছে। এছাড়াও পারিবারিক চাহিদা মেটাতে এই ইউনিয়নের প্রায় অধিকাংশ বাড়িতে একটি-দুইটি করে তেজপাতা গাছ লাগিয়েছে।

 

 

সাধারণত বর্ষার মৌসুমে তেজপাতা গাছ রোপন করা হয়। ২ বছর পরই থেকেই পাতা সংগ্রহ করা যায়। তিনি বলেন, মসলা জাতীয় তেজপাতা চাষে এ এলাকার মাটি ও আবহওয়া অনেক ভাল। এ ক্ষেত্রে কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। তেজপাতা বছরে দুই বার আহরন করা হয়। ৪-৫ বছর বয়সী এক বিঘায় জমির তেজপাতা গাছ ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকার লাভ হতে পারে।

 

 

কৃষি অফিসার জাহিদুল করিম জানান, তেজপাতা শুধু মসলা হিসেবেই ব্যবহার হয় না। এর ওসুধী গুন রয়েছে। তেজপাতার বাকল থেকে তেল ওষুধ- কীটনাশক এবং সুগন্ধির উপকরন হিসেবে ব্যবৃহত হয়। তেজপাতার জমিতে হলুদ,একানিসহ বিভিন্ন ফসল চাষ করা সম্ভব। তেজপাতা একটি নতুন অর্থকারী ফসল। সঠিক নিয়োমে এবং সঠিক ভাবে তেজপাতা চাষ করলে গতানুগতিক অন্য ফসলের চেয়ে এই ফসল চাষ করে কৃষকরা লাভবান হবেন বলে তিনি জানান।

পাইকগাছায় আলমতলার ওয়াপদা বেড়িবাঁধ নির্মান কাজের উদ্বোধনী
যশোরে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি যুবলীগ নেতা টাক মিলন আটক
করোনায় মৃত্যুবরণকারী সকলের জন্য অভয়নগর সোসাইটি ইউএসএ, ইনক্ -এৱ বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত
বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যালে শ্রদ্ধা নিবেদন করে নওয়াপাড়া মডেল স্কুল পরিচালনা কমিটির কার্যক্রম শুরু
ঝিকরগাছায় মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুতে সমবেদনা
মহেশপুরে খাল খনন পরির্দশন করলেন এমপি চঞ্চল
শ্যামনগরে জোর পূর্বক এনজিও’র কিস্তি আদায় : বিপাকে ঋণ গ্রহীতারা
যশোরে বেতন ভাতা পরিশোধের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান
পাইকগাছায় কৃষক হচ্ছে গ্রামীণ অর্থনীতি শক্তিশালী করার চালিকা শক্তি- এমপি বাবু
উপসর্গ নেই তবু করোনা পজিটিভ হলে যা করবেন?
বিজয়ের বাড়িতে পুলিশের তল্লাশি
ব্যক্তিগত কাজে মাঠে গিয়েছিলেন মুশফিক
শৈলকুপায় মুক্তিযোদ্ধার জমি দখল করে বিল্ডিং নির্মাণের অভিযোগ
দেশের জনগন প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন প্রকারের সুবিধা পাচ্ছেন- নাসির উদ্দিন এমপি
যশোরে ডলার প্রতারক চক্রের তিন সদস্য আটক : টাকা ও ডলার উদ্ধার
কেশবপুরকে মডেল উপজেলা করতে নৌকা মার্কায় ভোট দিন-শাহীন চাকলাদার
অবশেষে কারগার থেকে মুক্তি মিললো খুলনার সেই নিরপরাধ সালাম ঢালীর
স্বাস্থ্যবিধি মেনে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করতে হবে-শাহীন চাকলাদার
এবার করোনা আক্রান্ত পাকিস্তানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ফোরিডায় ব্রেনখেকো জীবাণুর সন্ধান
চীনে আরেক মহামারির আশঙ্কা : সতর্কতা জারি
বিএনপির মুখে দুর্নীতির কথা হাস্যকর-ওবায়দুল কাদের
‘গোয়াল ঘর আপনার গরু আমাদের’ লিখে গরু চুরি : গণপিটুনিতে নিহত তিন : আটক এক
যশোরের ৬টির মধ্যে ৪টিতে আসছেন বর্তমান এমপি
অভিযোগ বাক্স ঝুঁলিয়েছেন এমপি তন্ময় : আতংকে মাদক সিন্ডিকেট
করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তির লক্ষে বিশেষ দোয়া ও লিফলেট বিতরণ করলেন- নওয়াপাড়ার গদ্দীনশীন পীর
সিপাই থেকে ওসি হয়ে শতকোটি টাকার পাহাড়! দুদকে অভিযোগ
কোথাও ঠাঁই নেই : কবরস্থানে মা- ছেলের বসবাস
অভয়নগরে চিকিৎসকের স্ত্রীর আত্মহত্যা
নওয়াপাড়ার ধোপাদী গ্রামে ৩ ইভটিজারকে গণধোলাই
যশোরের নতুন পুলিশ সুপার হলেন আশরাফ হোসেন
লোহাগড়া হাসপাতাল থেকে ডেঙ্গু রোগীকে বের করে দিয়েছেন সেবিকা কল্পনা ও সাধনা!
বাঘারপাড়ায় ধর্ষণের পর হত্যা করে জয়নবের লাশ ঘেরে ফেলেছে হাফেজ মুজিবুল
নিষিদ্ধ ঘোষিত এনার্জি ড্রিংক্স
যশোর শিক্ষাবোর্ডের সাড়ে ২৯ লাখ টাকা অপচয় বন্ধ করে দিলেন ড. মোল্লা আমীর হোসেন
রাজগঞ্জে কাজীকে ৬ মাসের জেল, মেয়ের পিতা চাচা ও স্বামীকে জরিমানা
কিস্তি দিতে না পারায় ধান ও পালিত শুকর নিয়ে গেছে সমিতির লোকেরা!
নওয়াপাড়ায় মাছ বাজারে ১ কেজি বাটখারার ওজন ৮শ’ গ্রাম :
ফুলতলায় র‌্যাবের অভিযানে অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ অভয়নগরের ৩ জন আটক
পথ দেখালো মডেল স্কুল :অনুসরণ করলো আল হেলাল: নওয়াপাড়ায় গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় আবারও সংঘর্ষ : নদী সাঁতরে প্রাণ রক্ষার চেষ্টা
অভয়নগরে এই প্রথম করোনা রোগী শণাক্ত
 চোখের জল ফেলবেন নওয়াপাড়া শংকরপাশা সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী সরোয়ার!

ই-পত্রিকা-কাগজে যেমন অনলাইনে তেমন

ePaper

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
প্রয়োজনীয় নাম্বার

অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা : ০১৭১৭৮১৩৩৪৪

নওয়াপাড়া রেলওয়ে মাষ্টার : ০১৭১৮৫৮১০৯৪

হাইওয়ে থানা ওসি : ০১৭৬৯৬৯০৪৫৯

UNO অভয়নগর : ০১৭৩৩০৭৪০৩৫

অভয়নগর থানা : ০১৭১৩ ৩৭৪১৬৭

ফায়ার সার্ভিস : ০১৭৩২ ৫৫০৪৬০

জাতীয় জরুরী সেবা : ৯৯৯

খুলনা বিভাগীয় এর আরও খবর

//